ঢাকা, , শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯

ভালো হজ এজেন্সিকে পুরস্কার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার: ধর্ম সচিব

|| প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০১ ১৮:৪১:৩৩ || আপডেট: ২০১৮-০৩-০১ ১৮:৪১:৩৩

hajঅনিয়ম করা হজ এজেন্সিগুলোকে এতদিন শাস্তি দিলেও এবার ভালো এজেন্সিকে পুরস্কার দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

জাতীয় হজ ওমরাহ নীতিমালা-২০১৮ ও হজ প্যাকেজ-২০১৮ মন্ত্রিসভায় অনুমোদনের পর বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে ধর্ম সচিব আনিছুর রহমান এ তথ্য জানান।

সচিব বলেন, আমরা শুধু অভিযোগই করি সবাই খারাপ করে। এজেন্সিগুলোর মধ্যে অনেকেই আছে যারা খুব ভালো সার্ভিস দেয়। তাদের যাতে মূল্যায়ন হয় এবার সে ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ভালোদের নির্ণয় করতে কমিটি ও ক্রাইটেরিয়া নির্ধারণ করা হচ্ছে। তাদেরকে পুরস্কৃত করে সার্টিফিকেট ও প্রণোদনা দেয়া হবে।

তবে প্রণোদনা টাকায় দেয়া হবে না। তারা (একটি এজেন্সি) তো সর্বোচ্চ ৩০০ জন হজযাত্রী নিতে পারেন, যিনি সর্বোচ্চ ৩০০ জন নিয়ে ভালো করবেন তাকে হয়তো আমরা ১০ শতাংশ কোটা বাড়িয়ে দেয়া হবে। এটা অন্যকেও উদ্বুদ্ধ করবে, যে ভালো করলেও কিছু পাওয়া যায়। এটা আগে ছিল না।

গত বছর হজে অংশ নেয়া এজেন্সিগুলোর মধ্যে ১৯৩টির বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠে জানিয়ে ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান বলেন, অভিযোগ তদন্তে তিনজন যুগ্ম সচিবের নেতৃত্বে তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করি। কমিটি অভিযুক্ত এজেন্সি, অভিযোগকারীসহ সংশ্লিষ্টদের শুনানি গ্রহণ, অভিযোগ যাচাই-বাছাই শেষে সুপারিশসহ প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।

কমিটির সুপারিশ পর্যালোচনা করে ৬৪টি হজ এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, একই সঙ্গে এ এজেন্সিগুলোর কোনো কোনোটিকে জরিমানা ও জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ১৭ এজেন্সির লাইসেন্স স্থগিত ও জরিমানা করা হয়েছে, ৪৯টিকে জরিমানা, তিরস্কার ও সতর্ক করা হয়েছে। শুধু সতর্ক করা হয়েছে ১২ এজেন্সিকে। অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে ৫১ হজ এজেন্সিকে।

হজ এজেন্সির অনিয়ম বন্ধে এবার কী পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে- জানতে চাইলে ধর্ম সচিব বলেন, এবার যদি কেউ অনিয়ম করে একই পরিণতি হবে। এছাড়া সৌদি আরবে হজ যাত্রীদের জন্য ভাড়া করা বাড়িগুলো মান সম্মত আছে কিনা সে বিষয়ে তদারকি করা হবে।