ঢাকা, , মঙ্গলবার, ১৪ আগস্ট ২০১৮

স্মার্টফোন মেলায় আসা সর্বশেষ ফোনগুলো

|| প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১৬ ১০:১২:৪৬ || আপডেট: ২০১৮-০৭-১৮ ১২:৩৬:১৭

স্মার্টফোন প্রেমীদের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে রাজধানীতে শুরু হয়েছে স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা। এবারের মেলায় অংশগ্রহণকারী ব্র্যান্ডগুলো এনেছে তাদের সর্বশেষ মডেলের স্মার্টফোন। মেলাতেও উন্মোচন হয়েছে কয়েকটি হ্যান্ডসেট।

মেলায় আসা সর্বশেষ ডিভাইসগুলো নিয়ে এই প্রতিবেদন।

স্যামসাং

মেলার প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে অংশ নিয়েছে বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড স্যামসাং। ব্র্যান্ডটি স্মার্টফোন মেলায় নতুন একটি হ্যান্ডসেটের প্রি-বুকিং নেবে। গ্যালাক্সি জে ৮ মডেলের হ্যান্ডসেটটি মেলায় বুকিং দিলে গ্রাহকদের কাছে আগামী ২০ জুলাই থেকে পোঁছে দিতে শুরু করবে স্যামসাং।

এছাড়াও স্যামসাং মেলায় তাদের সর্বশেষ বাজারে আসা হ্যান্ডসেট গ্যালাক্সি এ৬ প্লাস এবং গ্যালাক্সি জে৬ বিক্রি করছে। ৫ দশমিক ৬ ইঞ্চির গ্যালাক্সি এ৬ প্লাস মডেলটিতে রয়েছে তিন জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি রম এবং ৪ জিবি র‍্যামের সঙ্গে ৬৪ জিবি রমের দুটি সংস্করণ। পিছনে ডুয়েল ক্যামেরা একটি ১৬ আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেল। সামনে রয়েছে ফ্ল্যাশসহ ২৪ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। দীর্ঘ ব্যাকআপ দেবে ৩৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি।camon-x

গ্যালাক্সি জে৬ মডেলটিও স্যামসাংয়ের সম্প্রতি উন্মোচন হওয়া ফোন। ফোনটিতে রয়েছে অকআটাকোর ১.৬ গিগহার্জের কর্টেক্স প্রসেসর। সামনে ৮ এবং পিছনে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এটিও ৩/৩২ এবং ৪/৬৪ জিবির দুটি আলাদা সংস্করণে পাওয়া যাচ্ছে। ব্যাটারি ব্যাকআপ দিতে রয়েছে ৩০০০ এমএএইচ শক্তির ব্যাটারি।

টেকনো

২০ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরার সঙ্গে ১৬ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা নিয়ে ক্যামন এক্স স্মার্টফোন এনেছে টেকনো মোবাইল। তিন দিনের স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায় টেকনো ফোনটিকে ঘিরেই বেশি প্রচারণা চালাচ্ছে। সাড়াও পাচ্ছে বেশ।

৬.০ ইঞ্চি ফুল এইচডি ইনফিনিটি (১৮:৯) ডিসপ্লের সঙ্গে রয়েছে ২.৫ডি গ্লাস, যা ব্যবহারকারীর অসাবধনতায় ক্ষতি এড়াতে ডিসপ্লে গার্ড হিসেবে কাজ করবে। ২.০ গিগাহার্জ অক্টাকোর প্রসেসরের ফোনটিতে রয়েছে ৩ গিগাবাইট র‍্যাম, ৩২ গিগাবাইট ইন্টারন্যাল মেমোরি। চাইলে মেমোরি বাড়ানো যাবে। দীর্ঘ ব্যাকআপ দিতে ফোনটিতে রয়েছে ৩৭৫০ এমএএইচ ব্যাটারি।

সিম্ফনি

সিম্ফনি তাদের সর্বশেষ বাজারে আসা স্মার্টফোন হ্যান্ডসেট জেড ১০ নিয়ে মেলায় হাজির হয়েছে।

দেশিয় প্রতিষ্ঠানটি ফুল ভিশন হ্যান্ডসেট হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ন্যুগাট ৭.১.২ চালিত অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটি বিক্রি করছে। ৫.৭ ইঞ্চ এইচডি আইপিএস ডিসপ্লের ডিভাইসটির রেজ্যুলেশন এইচডি প্লাস বা ১৪৪০*৭২০পি এবং অ্যাসপ্যাক্ট রেশিও ১৮:৯।

স্ন্যাপড্রাগন ৪২৫ কোয়াড কোর ১.৪ গিগাহার্জ প্রসেসর, ৩ জিবি র‍্যাম এবং ৩২ ইন্টার্নাল স্টোরেজ। মেমোরি কার্ডে বাড়ানো যাবে ১২৮ জিবি পর্যন্ত। রয়েছে পিছনে ১৩ মেগাপিক্সেল এবং সামনে ১৬ মেগাপিক্সেলের অটোফোকাস ক্যামেরা।
ফোনটি ১৫ হাজার ৯৯০ টাকায় বিক্রি করছে সিম্ফনি।

হুয়াওয়ে

এপ্রিলে দেশের বাজারে আসা নোভা থ্রিই হুয়াওয়ের সর্বশেষ হ্যান্ডসেট। গত এপ্রিলে দেশে ফোনটি উন্মোচন করে হুয়াওয়ে। স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায় ফোনটিকেউ বেশি জোর দিচ্ছে হুয়াওয়ে।

ফোনটির অ্যাস্পেক্ট রেশিও ১৯:৯। এতে আছে ৫ দশমিক ৮৪ ইঞ্চি ফুলএইচডি স্ক্রিন। ব্যবহার করা হয়েছে হুয়াওয়ে ফুলভিউ ডিসপ্লে ২.০।
ব্যাক ক্যামেরায় আছে ১৬ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরা। ফ্রন্টে আছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি মেমোরি, যা ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে।

ব্যাটারি ব্যাকআপ দিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

ভিভো

ভিভো ভি৯ ফ্ল্যাগশিপটির ঘোষণা আসে চলতি বছরের মার্চ মাসে। তারপর থেকেই অপেক্ষা। আর পরে বাজারে আসলে সেটাই সর্বশেষ ফ্ল্যাগশিপ হয় ভিভোর। স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায় প্রথমবার অংশ নিয়েই ফ্ল্যাগশিপটি প্রদর্শন করছে ভিভো।

৬ দশমিক ৩ ইঞ্চির ফোনটি স্ন্যাপড্রাগন ২.২ গিগাহার্জ অক্টাকোর কোটেক্স ২৫৩ প্রসেসর।

চার জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবির ইন্টারনাল মেমোরিতে পাওয়া যাচ্ছে।
সামনে ২৪ মেগাপিক্সেল, পিছনে ডুয়েল ক্যামেরা একটি ১৬ এবং আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেল। ফিঙ্গারপ্রিন্টসহ ৩২৬০ মিলিঅ্যাম্পয়ারের ব্যাটারি রয়েছে ফোনটিতে।

ভিভো ওয়াই৮১

সর্বশেষ উন্মোচন করা স্মার্টফোন ওয়াই৮১। ফোনটি গত মাসের শেষ দিকে বাজারে এসেছে। ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও মিডিয়াটেক হেলিও পি২২ অক্টাকোর ২.০ গিগাহার্জ কোর্টেক্স প্রসেসর।

সামনে ৫ এবং পিছনে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। তিন জিবি র‍্যাম এবং ৩২ জিবি রম যা বাড়ানো যাবে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত। রয়েছে ব্যাকআপ দিতে ৩২৬০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি।

অপ্পো

এফ সিরিজের নতুন সংস্করণ এফ৭ দেশের বাজারে বিক্রি শুরু হয়েছে গত এপ্রিল থেকে। সেটাই অপ্পোর সর্বশেষ ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস। আর সেটি নিয়েই এবার মেলা মাতাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। ফোনটিতে আছে ২৫ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। পেছনে আছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ফোনটিতে রয়েছে, ৬ দশমিক ২৩ ইঞ্চির ফোনটির রেজুলেশন ২২৮০*১০৪০ পিক্সেল। ফোনটির অ্যাস্পেক্ট রেশিও ১৯:৯।

ফোনটিতে আছে ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি মেমোরি। হ্যান্ডসেটটি সোলার রেড, মুনলাইট সিলভার, ডায়মন্ড রঙে পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়াও ফোনটির ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি মেমোরি সংস্করণের ফোনটিও রয়েছে। ফোনটির ব্যাকআপের জন্য রয়েছে ৩২০০এমএএইচ নন রিমুভ্যাবল ব্যাটারি।

ইউমিডিজি
দেশে খুব বেশি দিন হয়নি ইউমিডিজি ব্র্যান্ডের ফোন উন্মোচন করে। এবার তারা প্রথবোরের মতো অংশ নিয়েই ইউমিডিজি এ ওয়ান প্রো ফোন এনেছে প্রতিষ্ঠানটি। ফোনটিতে রয়েছে ৫.৫ ইঞ্চি আইপিএস ডিসপ্লে এবং ৪ডি কার্ভ গ্লাস বডি। এতে ১.৫ গিগাহার্টজ মিডিয়াটেক কটেক্স-এ ৫৩ চিপসেটের প্রসেসর রয়েছে। ৩ গিগাবাইট র্যামের পাশাপাশি রয়েছে ১৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি। চাইলে ব্যবহারকারীরা ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন।

পেছনে রয়েছে ১৩ ও ৫ মেগাপিক্সেল ডুয়েল ক্যামেরা ও ফ্ল্যাশ। সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৮.১।

৩ হাজার ১৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ফোনটিতে রয়েছে ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। এ ছাড়া ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, ব্লুটুথ আছে ডুয়েল সিমে ফোনটিতে।

নকিয়া
নকিয়া বাজারে আসা তাদের বেশকিছু হ্যান্ডসেট নিয়েই মেলায় অংশ নিয়েছে। নকিয়া ১ থেকে শুরু করে ৬ এবং ৬.১ও রয়েছে এর মধ্যে। তবে নকিয়ার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা স্মার্টফোন মেলায় নকিয়া ৩.১ মডেলের হ্যান্ডসেট উন্মোচন করার তারিখ ঘোষণা করবেন। একই সঙ্গে মেলা থেকেই হ্যান্ডসেটটির প্রিবুকিং নেওয়া শুরু হয়েছে।

নকিয়া ৩.১ ফোনটিতে রয়েছে ১৮:৯ অনুপাতের ৫ দশমিক ২ ইঞ্চি, ১৪৪০ x ৭২০ পিক্সেল রেজুলেশন ডিসপ্লে। ৩ গিগাবাইট পর্যন্ত র্যাম। প্রসেসর থাকছে মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫০ অক্টাকোর।

মূল ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেল, সেলফি ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেল। স্টোরেজ থাকবে ৩২ গিগাবাইট পর্যন্ত। ব্যাটারি ২৯৯০ এমএএইচ।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১