ঢাকা, , মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৮

শুরুতেই বাংলাদেশের হোঁছট

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০১৮-০৮-০২ ১১:৩৩:২৩ || আপডেট: ২০১৮-০৮-০২ ১১:৩৬:৪৩

সামনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দুটি টুর্নামেন্ট। এশিয়ান গেমস ও সাফ ফুটবল। এই দুটি টুর্নামেন্টের শেষ প্রস্তুতি নিতে দক্ষিণ কোরিয়া সফরে গেছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। কিন্তু সেখানে বাংলাদেশ দল সফরের শুরুটা করল হার দিয়ে। আজ বুধবার গুয়াংজু এফসির কাছে ২-০ গোলে হেরে গেছে বাংলাদেশ। এই হার কতটা হতাশার সেটি একটি তথ্যেই স্পষ্ট, এই গুয়াংজু কোরিয়ার দ্বিতীয় বিভাগের লিখে খেলা একটি ক্লাবটি!
গুয়াংজুর বিপক্ষে এই ম্যাচটিতে প্রথমে সম্ভাব্য সেরা দলটিই নামিয়েছিলেন বাংলাদেশের নতুন কোচ জেমি ডে। পরে তিনি ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দলের প্রায় সব খেলোয়াড়কেই খেলিয়েছেন। কিন্তু বাজিয়ে দেখা পর্যন্তই। গুয়াংজুর গোলমুখ খুলতে পারেনি কোনোভাবেই। উল্টো দুই অর্ধেই একটি করে গোল হজম করে বাংলাদেশ।
এশিয়ার সবচেয়ে বড় ক্রীড়াযজ্ঞ এশিয়ান গেমস শুরু হচ্ছে ১৮ আগস্ট থেকে। তবে এশিয়াড ফুটবল মাঠে গড়াবে তারও ৪ দিন আগেই, ১৪ আগস্ট। আর উদ্বোধনী দিনেই শক্তিশালী উজবেকিস্তানের বিপক্ষে। এই উজবেকিস্তান ছাড়াও বাংলাদেশের গ্রুপের আছে থাইল্যান্ড ও কাতার। থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি ১৬ আগস্ট। ১৯ আগস্ট কাতারের বিপক্ষে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচ।
গ্রুপের ৩টি দলই তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি শক্তিশালী। তার মধ্যে বাংলাদেশ দলের প্রস্তুতিটা যেভাবে হচ্ছে, তাতে ইন্দোনেশিয়ার এশিয়ান গেমসে ভরাডুরি শঙ্কাটাই স্পষ্ট হচ্ছে ক্রমে।
কোরিয়া সফরের আগে কাতারে কন্ডিশনিং ক্যাম্প করতে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সেখানেও একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে দ্বিতীয় বিভাগের দল আলমেজাইমির সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছিল জেমি ডে’র দল। তার আগে দেশের মাটিতে শেখ জামাল ধানমণ্ডির বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচটিতেও ২-২ গোলের হতাশায় পুরতে হয় জাতীয় দলকে!
মানে প্রস্তুতিপর্বে এখনো জয়ের দেখা পাননি জামাল ভুঁইয়ারা। এ থেকেই স্পষ্ট, লাল সবুজের দলের প্রস্তুতিটা একদমই ভালো হচ্ছে না। তবে ইন্দোনেশিয়ায় রওনা হওয়ার আগে কোরিয়ায় আরও দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ আছে বাংলাদেশের। ৩ ও ৪ আগস্ট সেই দুটি প্রস্তুতি ম্যাচই কোরিয়ার শিনহান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপক্ষে।
কোরিয়া থেকে সরাসরি ইন্দোনেশিয়া উড়ে যাওয়ার আগে একটু আত্মবিশ্বাস্য সঞ্চয় করতে হলে শেষ ওই ম্যাচ দুটিতে ভালো করতে হবে। জামাল ভুঁইয়ারা পারবেন ঘুরিয়ে দাঁড়িয়ে শিনহান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপক্ষে জয় পতাকা উড়াতে। না পারলে আত্মবিশ্বাসের ঠুনকো পাত্রটা আরও বেশি ঠুনকো হয়ে যাবে।

আর্কাইভ