ঢাকা, , মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সিআইপি কার্ড পেলেন ৫৬ ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০১৮-০৯-১৩ ১৩:৪৩:০৬ || আপডেট: ২০১৮-০৯-১৩ ১৩:৪৩:০৬

শিল্পখাতে বিশেষ অবদানের জন্য ৫৬ ব্যবসায়ীকে ‘বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি’ হিসেবে সিআইপি (শিল্প) কার্ড দিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়। এসব কার্ড দিয়ে ব্যবসায়ীরা সরকারী বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ব্যবসায়ীদের হাতে সিআইপি কার্ড তুলে দেন।

নতুন সিআইপিদের মধ্যে পদাধিকার বলে ৮ জন সিআইপি (শিল্প) নির্বাচিত হন। তারা হলেন-ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) সাবেক সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ, বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (বিসিআই) সভাপতি এ কে আজাদ, বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান এবং বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) সভাপতি এ কে এম সেলিম ওসমান।

পদাধিকার বলে নির্বাচিত আরও ৪ জন হলেন-
ফরেন ইনভেস্টরস চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফআইসিসিআই) প্রেসিডেন্ট রূপালী হক চৌধুরী, বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি সেলিমা আহমাদ, বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তপন চৌধুরী এবং জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি বাংলাদেশের (নাসিব) সভাপতি মির্জা নুরুল গণি শোভন।

এছাড়াও বৃহৎ শিল্প (উৎপাদন) ক্যাটাগরিতে ২০ জন, বৃহৎ শিল্প (সেবা) ক্যাটাগরিতে ৫ জন, মাঝারি শিল্প (উৎপাদন) ক্যাটাগরিতে ১২ জন, মাঝারি শিল্প (সেবা) খাতে ৩ জন, ক্ষুদ্র শিল্প ( সেবা) খাতে ১ জন, মাইক্রো শিল্পে ১ জন ও কুটির শিল্পে ১ ব্যবসায়ী ২০১৬ সালের জন্য সিআইপি কার্ড পেয়েছেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, নতুন উদ্যোক্তা তৈরিতে সরকার সব ধরণের সহযোগিতা করবে। পরনির্ভরশীলতা পরিহার করে দেশে নতুন নতুন শিল্প উদ্যোক্তা তৈরি করা হবে। নানা প্রতিবন্ধকতাকে উপেক্ষা করে ব্যবসায়ীরাই দেশের প্রবৃদ্ধিকে এগিয়ে নিচ্ছে। সেই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, অর্থনৈতিক এলাকাগুলো প্রস্তুত করতে আরও ৩ থেকে ৪ বছর সময় লাগবে। অন্তর্বতীকালীন এই সময়ে ব্যবসায়ীরা কিভাবে এগিয়ে যাবে তা ভাবতে হবে। ছোট ও মাঝারি শিল্প নানা সমস্যায় ভুগছে। তরল গ্যাস (এলএনজি) আমদানি শুরু হয়েছে। বিদ্যুতের দাম বাড়ছে। আগামী ৫ থেকে ১০ বছরে বিদ্যুতের দাম কি পরিমাণে বাড়বে সরকারের পক্ষ থেকে তার একটি চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরা উচিত। এতে ব্যবসা ব্যয় বৃদ্ধি সম্পর্কে আভাস পাওয়ায় ব্যবসা পরিচালনার নীতি গ্রহণ করা সহজ হবে।

বিকেএমইএ’র সভাপতি সেলিম ওসমান বলেন, পোশাক খাতের তৃতীয় শক্তিকে শক্তভাবে দমন করতে হবে। সামনে নির্বাচন, শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে সবার কাজ করতে হবে৷

শিল্প মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে সিআইপি কার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০