ঢাকা, , বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮

স্ট্যাবিলাইজার ছাড়াই চলবে ওয়ালটন ফ্রিজ

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০১৮-০৯-২৭ ০৭:০৬:৫০ || আপডেট: ২০১৮-১০-০৬ ০৩:০৯:০৩

স্ট্যাবিলাইজার ছাড়াই চলছে ওয়ালটনের ইনভার্টার প্রযুক্তির ফ্রিজ। এ ধরনের ফ্রিজে স্ট্যাবিলাইজারের প্রয়োজন না হওয়ায় ক্রেতাদের যেমন অর্থ সাশ্রয় হচ্ছে, ফ্রিজ ব্যবহারে বিদ্যুত খরচও কমে এসেছে ব্যাপক। অন্যদিকে নি¤œমানের স্ট্যাবিলাইজার ব্যবহারের কারণে অনেক ফ্রিজও নষ্ট হয়ে যেতে পারে।
উল্লেখ্য, বিদ্যুৎতের ভোল্টেজ ওঠা-নামা করার কারনে ফ্রিজ যেন নষ্ট না হয়, সেজন্য ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার ব্যবহার করে থাকেন অনেকেই। ফলে, ফ্রিজ কেনার সময় গ্রাহককে স্ট্যাবিলাইজার কিনতে বাড়তি দুই থেকে তিন হাজার টাকা ব্যয় করতে হয়। এটি উপযুক্ত স্থানে রাখার ক্ষেত্রেও ঝামেলায় পড়েন গ্রাহক। আবার স্ট্যাবিলাইজার নকল বা নি¤œমানের হলে দাম দিয়ে কেনা ফ্রিজটি নষ্ট হয়ে যেতে পারে।
গ্রাহককে এসব ঝামেলা থেকে মুক্তি দিতে ওয়ালটন নিজস্ব কারখানায় দেশেই উৎপাদন করছে ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসার যুক্ত ফ্রিজ।
সূত্রমতে, ভোল্টেজ স্ট্যাবিলাইজার ছাড়াই নিরাপদে চলবে এমন ৩০ টিরও বেশি মডেলের ফ্রস্ট ও নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর বাজারে ছেড়েছে ওয়ালটন। ২০১৯ সালের মধ্যে ওয়ালটনের সব মডেলের ফ্রিজই হবে স্ট্যাবিলাইজারমুক্ত। এজন্য ফ্রিজে ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তি সংযোজনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
ওয়ালটন ফ্রিজ আরএনডি (গবেষণা ও উন্নয়ন) বিভাগের প্রকৌশলীরা জানান, বিদ্যুৎতের ভোল্টেজ ফ্ল্যাকচুয়েশন বা তারতম্য সম্পর্কে তথ্য পেতে তারা একটি জরিপ করেন। দেখা যায় বিদ্যুত চলে গেলে, হঠাৎ আসলে কিম্বা অকস্মাৎ ভোল্টেজ উঠানামা করলে কম্প্রেসরের মোটর উল্টো ঘুরতে পারে। এতে কম্প্রেসর জ্বলে যেতে পারে। আর তাই এ সমস্যা সমাধানে গবেষণা করে ওয়ালটনের প্রকৌশলীরা ইনভার্টার কম্প্রেসারের ডিজাইন করেছেন। নতুন ডিজাইনের ওয়ালটন কম্প্রেসরে বিদ্যুত প্রবাহ সর্বনি¤œ ১০০ ও সর্বোচ্চ ২৮০ ভোল্টেও কোনো সমস্যা হয় না।
ওয়ালটন সোসিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের নির্বাহী পরিচালক প্রকৌশলী আশরাফুল আম্বিয়া বলেন, ফ্রিজে ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয় করতে পারে একমাত্র ইনভার্টার প্রযুক্তি। এছাড়াও ফ্রিজের অভ্যন্তরে সংরক্ষিত খাবারের পরিমান বা লোড অনুযায়ী মাদারবোর্ডের মাধ্যমে কম্প্রেসারের গতি নিয়ন্ত্রিত হয়। অর্থাৎ যখন প্রয়োজন পড়ে কেবল তখনই বিদ্যুৎ ব্যবহৃত হয়। ফলে বিদ্যুৎ খরচ অনেক কম হয়।
তিনি জানান, ইন্ডাকশন প্রযুক্তির তুলনায় ইনভার্টার প্রযুক্তির কমপ্রেসার চালু হতে বিদ্যুৎ খরচ প্রায় ৮-১০ গুণ কম হয়, চলে অতি লো ভোল্টেজেও। এসব কারনে ওয়ালটন ইনভার্টার ফ্রিজে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয় প্রায় ৬০ শতাংশ পর্যন্ত।
ওয়ালটন কম্প্রেসার আরএনডি বিভাগের ইনচার্জ প্রকৌশলী মীর মুজাহেদীন ইসলাম বলেন, ব্যাপক গবেষণার মাধ্যমে ওয়ালটন ফ্রিজে সংযোজন করা হয়েছে ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ও লো-ভোল্টেজ স্টার্টিং ক্ষমতার ইনভার্টার কম্প্রেসার। তিনি বলেন, একটি ফ্রিজে সবচেয়ে বেশি বিদ্যুৎ প্রয়োজন হয় কম্প্রেসার অন-অফ এর সময়।
ওয়ালটন সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের রেফ্রিজারেশন অ্যান্ড এয়ার কন্ডিশনিং বিভাগের প্রধান আনিসুর রহমান মল্লিক জানান, নি¤œমানের স্ট্যাবিলাইজার ব্যবহার করায় অনেক সময় ফ্রিজ নষ্ট হয়ে যায়। এখন এসব ঝামেলার দিন শেষ।

আর্কাইভ