ঢাকা, , মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯

প্লাস্টিক পণ্য হতে পারে মৃত্যুর কারণ!

:: রাশেদ মোবারাক || প্রকাশ: ২০১৯-০৩-০৪ ১২:৫৩:০২ || আপডেট: ২০১৯-০৩-০৪ ১৩:১৪:১০

খাবারের প্যাকেট,শিশুদের টিফিন বক্স,রোগীদের পথ্য পরিবহনে ব্যবহার হচ্ছে স্বাস্থ্যের জন্য চরম ক্ষতিকর প্লাস্টিক পণ্য।এজমা,গ্যাস্ট্রিক থেকে শুরু করে ক্যান্সারে আক্রান্ত হবার কারণ হতে পারে এই প্লাস্টিক।বিশেষজ্ঞরা বলছেন,মৃত্য পযন্ত ঘটতে পারে এটি ব্যবহারের ফলে।

পরিবেশবিদ সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান জানান, শোনা যায় পুনঃব্যবহৃত প্লাস্টিক দিয়ে দই-মিষ্টান্নসহ অন্যান্য খাবারের পাত্র তৈরি হচ্ছে, যেগুলো স্বাস্থ্যসম্মত নয়। এটা বন্ধ করতে হবে। আমাদের উন্নয়ন কার্যক্রম যেমন চলমান, তেমনি পরিবেশসম্মত উন্নয়ন করাও আমাদের লক্ষ্য হওয়া উচিৎ। প্লাস্টিক সামগ্রীর ব্যবহার শুধু পরিবেশের ক্ষতিই করছে না, এটি মানবদেহের জন্যও ব্যাপক ক্ষতিকারক হিসেবে চিহ্নিত। পেটের পীড়া, হরমোনের সমস্যা, লিভারের সমস্যা, এমনকি অনেক ক্ষেত্রে ক্যান্সারের মতো ভয়ঙ্কর রোগের জন্যও দায়ী প্লাস্টিক সামগ্রী।

সম্প্রতি এসডোর প্রাথমিক জরিপে দেখা গেছে, প্রতি মাসে প্রায় ২৫০ টন পুনরায় ব্যবহার অযোগ্য প্লাস্টিক স্ট্র এবং প্লাষ্টিকের কাটলারি রাজধানীর বেগমবাজার ও মৌলভীবাজারে বিক্রি হচ্ছে। আকার এবং ওজনে সুবিধাজনক হলেও প্লাস্টিকের বোতল স্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর। তা সত্তে¡ও প্লাস্টিকের বোতলে শুধু পানি নয়, তেল, সস, জুস এমনকি ওষুধ পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। পুনরায় ব্যবহার অযোগ্য প্লাস্টিক মাত্র একবার ব্যবহার করার পর ফেলে দেয়া হয়, যা বর্জ্য হিসেবে নিকটবর্তী নদী, ড্রেন, এবং সমুদ্রকে দূষণ করছে।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত বলেন, প্লাস্টিক পণ্য আমেরিকায় বেশি ব্যবহার হলেও সেখানে ভার্জিন প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়। অথচ আমাদের দেশে বারবার পুড়িয়ে প্লাস্টিক পণ্য ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে পরিবেশের ক্ষতি হচ্ছে।

প্লাস্টিক পণ্য ব্যবহারের পর বিভিন্ন জায়গায় তা ফেলা হয়।যা এক সময় নদী,সমুদ্রে গিয়ে মাছসহ জলজ উদ্ভিদের স্বাভাবিক জীবন ধারনে বাধা সৃষ্টি করে।

এমনকি প্লাস্টিক বোতল,পণ্যের প্যাকেট,ভারী প্লাস্টিকের আঘাতে প্রাণ হারাতে হয় প্রকৃতির অপরুপ অনেক জলজ প্রাণীর।ঢাকার জলাবদ্ধতার অনেক কারণগুলোর একটি প্লাস্টিক।প্লাস্টিকের কারণে নালা-নর্দমা-খাল বন্ধ হয়ে যায়।প্লাস্টিক পণ্য ৫০০ বছরেও মাটির সঙ্গে মেশে না।

 

সান বিডি/রাশেদ