চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সেমির পথে বার্সেলোনা

স্পোর্টস ডেস্ক || প্রকাশ: ২০১৯-০৪-১১ ১০:২৩:০১ || আপডেট: ২০১৯-০৪-১১ ১০:২৩:০১

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ঘরের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে এর আগে চার ম্যাচ খেলেও জিততে পারেনি স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনা। দুইটি করে ছিলো ড্র এবং পরাজয়। অবশেষে গতকাল রাতে কাটলো সেই জয়খরা।

ইউনাইটেডের ঘরের মাঠে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগের ম্যাচে ম্যান ইউকে ১-০ গোলে হারিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রাখলো বার্সেলোনা। ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেছেন ম্যান ইউর ডিফেন্ডার লুক শ।

শুরু থেকেই বার্সেলোনার গোছানো ফুটবলের সামনে খাবি খেতে থাকে রেড ডেভিলরা। ম্যাচের প্রথম ২০ মিনিটে এক অর্থে স্রেফ বার্সেলোনাই নিয়ন্ত্রণ করে পুরো ম্যাচটা। এর মধ্যে ১২তম মিনিটেই চলে আসে কাঙ্ক্ষিত গোল।

ডি-বক্সের বাম পাশ থেকে লুইস সুয়ারেজের উদ্দেশ্যে মাপা ক্রস বাড়ান লিওনেল মেসি। ফাঁকায় থাকা সুয়ারেজ হেড করেন গোলের উদ্দেশ্যে। তবে সেটি জালে প্রবেশ করার আগে ছুঁয়ে যায় লুক শ’র গায়ে। ফলে লেখা হয় আত্মঘাতী গোল হিসেবে। প্রথম লাইনসম্যান অফসাইডের বাঁশি বাজালেও, পরে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে সেটিকে গোল ঘোষণা করেন মূল রেফারি।

পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে ম্যান ইউ। ফলে খেলার মধ্যেও চলে আসে উগ্রতা। ম্যাচের ৩১তম মিনিটে বাতাসে ভেসে আসা বল নিজের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন মেসি। হুট করেই পেছন থেকে এসে ধাক্কা দেন ডিফেন্ডার ক্রিস স্মলিং। নাক দিয়ে রক্ত ঝরতে থাকে মেসির। তবে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েই মাঠে নেমে পড়েন বার্সা অধিনায়ক।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেও দেখা মেলেনি খুব বেশি আক্রমণের। স্বাগতিক ম্যান ইউ বারবার খেই হারাচ্ছিলো বার্সার রক্ষণভাগে গিয়ে। অন্যদিকে সাজানো আক্রমণে ম্যান ইউর রক্ষণে হানা দিলেও বার্সেলোনা ভুগছিলো ফিনিশিংয়ের অভাবে। নাকে ব্যথা পাওয়ার পর মেসিকেও দেখা যায় নিষ্প্রভ।

বার্সেলোনা পুরো ম্যাচে ৬৭ শতাংশ বল নিজেদের দখলে রাখে । ছয়বার আক্রমণে উঠে ৩টি শট তারা লক্ষ্যে রাখতে সক্ষম হয়। অন্যদিকে দশবার আক্রমণে গিয়েও গোলবারের দিকে একটি শট করতে পারেনি ম্যান ইউ। হলুদ কার্ড দেখেন ম্যান ইউর লুক শ, ক্রিস স্মলিং এবং হেসে লিনগার্ড। বার্সেলোনার পক্ষে হলুক কার্ড দেখেন সার্জিও বুসকেটস এবং আর্তুরো ভিদাল।

আগামী মঙ্গলবার বার্সেলোনার মাঠ ক্যাম ন্যুতে হবে কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগ। সেখানে ড্র করলেই শেষ চারের টিকেট পাবে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নরা। দিনের আরেক মাচে নেদারল্যান্ডসের ক্লাব আয়াক্সের মাঠ থেকে ১-১ ড্র করে ফিরেছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস।