মেধাস্বত্ত্ব একাডেমি স্থাপনে সহযোগিতা করবে ওয়াইপো

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০১৯-০৪-১১ ১১:০১:৫৭ || আপডেট: ২০১৯-০৪-১১ ১১:০১:৫৭

বাংলাদেশে মেধাস্বত্ত্ব একাডেমি স্থাপনের ক্ষেত্রে সহযোগিতা করবে ওয়ার্ল্ড ইন্টেলেকচুয়াল প্রোপার্টি অর্গানাইজেশন বা ওয়াইপো।

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বিশ্ব মেধাসম্পদ সংস্থার সদরদপ্তরে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সঙ্গে এক বৈঠকে একথা জানান ওয়াইপোর মহাপরিচালক ফ্রান্সিস গুরি।

বৈঠকে ফ্রান্সিস গুরি বলেন,বর্তমান প্রযুক্তির বিশ্বে মেধাসম্পদ রক্ষা করা একটি নতুন চ্যালেঞ্জ। বিশেষ করে ফেইসবুক, গুগলের এই সময়ে যখন সবাই একে অপরের সঙ্গে ইন্টারনেট দুনিয়ায় যুক্ত তখন মেধাসম্পদের সুরক্ষা কীভাবে হবে তা নতুন করে ভাবতে হবে।

নতুন যে টেকনোলজি রয়েছে সেগুলোর ক্ষেত্রে পলিসি কেমন হবে তা নিয়ে আলোচনা করেন গুরি। ইন্ডাস্ট্রি ৪.০, বিগডেটা, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের মতো প্রযুক্তির সমান্তরালে ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টির রাইটস নিয়ে পলিসির কথা বলেন তিনি। যা জাতিসংঘের সভায় তুলতে পেশ করা হবে  বলে উল্লেখ করেন।

বাংলাদেশসহ উন্নয়নশীল দেশগুলোর মেধাসম্পদ সংরক্ষণে ওয়াইপোর নেয়া পদক্ষেপগুলোর কথা বলেন সংস্থাটির মহাপরিচালক।  ওয়াইপো মহাপরিচালককে সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে মোস্তাফা জব্বার বাংলাদেশের কপিরাইট আইন, পেটেন্ট ও ডিজাইন আইন, ভৌগলিক নির্দেশন পণ্য নিবন্ধন ও সুরক্ষা আইনের উল্লেখ করেন।

বিশেষ করে ভৌগলিক নির্দেশন পণ্য নিবন্ধন ও সুরক্ষা আইন তৈরির সময় ওয়াইপোর পরামর্শের কথা স্মরণ করেন মোস্তাফা জব্বার। ২০১০ সালে ওয়াইপো মহাপরিচালক যখন বাংলাদেশ আসেন তখন আইপি একাডেমি স্থাপনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শের কথা এসময় উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

এর জবাবে ফ্র্যান্সিস গুরি মন্ত্রীকে আইপি একাডেমি  স্থাপনে সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দেন। তখন একাডেমির রিসোর্সগুলো বাংলায় করার বিষয়ে প্রস্তাব দেন মন্ত্রী এবং তা সানন্দে গ্রহণ করেন ওয়াইপো মহাপরিচালক।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, বর্তমান যুগের তথ্যপ্রযুক্তির গতি ও ডাইমেশনের সমান তালে আইপি পলিসি নতুন করে করতে হবে। নীতিমালাগুলো ঢেলে সাজাতে হবে এবং এই বিষয়ে ওয়াইপো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে বলে। এসময় মন্ত্রী ওয়াইপোর এক্সেস টু বুকস কনসোর্টিয়ামের সহায়তা অব্যাহত রাখার কথা বলেন।

বৈঠকে টেলিযোগাযোগ বিভাগের উপসচিব মুহম্মদ খুরশেদ আলম খান, জেনেভাস্থ বাংলাদেশ মিশনের প্রথম সচিব মাহবুবুর রহমান, আমাদের গ্রাম উন্নয়নের জন্যে তথ্যপ্রযুক্তি প্রকল্পের পরিচালক রেজা সেলিম  ও ওয়াইপোর উর্ধতন কর্মকর্তা এনায়েত মাওলাসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত থাকার সুযোগ হয়েছিল আমারও।