ঢাকা,শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯

বাংলাদেশ-ভুটান ২৬ টি পণ্য শুল্কমুক্ত বাণিজ্যের প্রস্তাব

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০১৯-০৪-১৫ ১১:৩০:৫৭ || আপডেট: ২০১৯-০৪-১৫ ১১:৩৬:০০

প্রথমবারের মত বাংলাদেশ সফর করছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডা. লোতে শেরিং। সফরকালে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিপাক্ষীক বৈঠকে মিলিত হন। এসময়  উভয় দেশের  মোট ২৬টি পণ্য শুল্কমুক্ত বাণিজ্যের বিষয়ে কথা হয়েছে।এর মধ্যে ভুটান প্রস্তাব করেছে ১৬টি ও বাংলাদেশ প্রস্তাব করেছে ১০টি পণ্যের নাম।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়।

এসময় ভুটানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় কম বলে উল্লেখ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ডা. লোতে শেরিং। এই ঘাটতি পূরণে ভুটানের সরকারি হাসপাতালে কাজ করার জন্য বাংলাদেশ থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তিনি।

ডা. লোতে শেরিং ভুটানের হেলথ ট্রাস্ট ফান্ডে প্রয়োজনীয় ওষুধ অনুদান দেওয়ায় বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন । এছাড়া দুই দেশের মধ্যকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও জোরদার করার ব্যাপারে আলোচনা করেছেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে পণ্য সরবরাহের জন্য ট্রানজিট সুবিধা শিগগিরই চূড়ান্তের ব্যাপারে আগামীর বাণিজ্য-সচিব পর্যায়ের বৈঠকে আলোচনার ব্যাপারেও কথা হয়েছে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে। এছাড়া দুই দেশের মধ্যে পানিপথে কার্গো পরিবহনের জন্য সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তারা।

আরও বলা হয়, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ভুটানকে দেওয়া ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ ও স্যাটেলাইট সেবা সরবরাহের প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া আঞ্চলিক বিভিন্ন ইস্যুতে সহযোগিতার ব্যাপারেও আলোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ডা. লোতে শেরিং।

দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে কৃষিখাত, লোকপ্রশাসন প্রশিক্ষণ, পর্যটন শিল্প, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ, বাণিজ্য, পানিপথ ব্যবহারে দুই দেশের বাণিজ্য প্রভৃতি বিষয়ে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ১২ থেকে ১৫ এপ্রিল চার দিনের সফরে বাংলাদেশে এসেছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডা. লোতে শেরিং। তিনি এদেশের ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস সম্পন্ন করে দেশে ফিরে রাজনীতিতে যোগ দেন। গত বছর প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। এরপর এটাই তার প্রথম বাংলাদেশ সফর।