ঢাকা,সোমবার, ২৭ মে ২০১৯

বিএসটিআই’র মামলা ১১টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০১৯-০৫-১৫ ১৯:২৭:০৯ || আপডেট: ২০১৯-০৫-১৫ ১৯:২৭:৩৪

মানহীন পণ্য বিক্রি ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি এবং ওজন যন্ত্রের ভেরিফিকেশন সনদ গ্রহণ না করার অপরাধে ১১টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে জাতীয় মান নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই)। আজ বুধবার রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে এসব মামলা দায়ের করা হয়।

বিএসটিআই’র লাইসেন্স গ্রহণ না করে পণ্য বিক্রি ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে পাউরুটি-বিস্কুট উৎপাদন করার অপরাধে রাজধানীর গেন্ডারিয়ায় তুর্য ব্রেড এন্ড বিস্কুট ফ্যাক্টরি ও লাইসেন্স না থাকায় যাত্রাবাড়ির বিক্রমপুর ভাগ্যকুল মিষ্টান্ন ভান্ডার, ধামরাইয়ের বেইজ পেপারস লিমিটেড, উত্তরার লা বামবা লিমিটেডের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং অস্বাস্থ্যকর নোংরা পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন ও সংরক্ষণ করার অপরাধে ফকিরাপুল এলাকার আল ইমাম রেস্টুরেন্টকে ৩০ হাজার, এশিয়া গার্ডেন রেস্টুরেন্টকে ৫০ হাজার, গাউসিয়া হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টকে ৩০ হাজার, আব্দুল কুদ্দুস ভূইয়া স্টোরকে ২০ হাজার এবং আরামবাগের ঘরোয়া রেস্টুরেন্টকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ভেরিফিকেশন সনদবিহীন ডিজিটাল স্কেলের ব্যবহার ও পণ্যের মোড়কে ওজন, মূল্য, উৎপাদন ও মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ এবং পণ্যের পরিচিতি উল্লেখ না করায় মিরপুরের মেসার্স রওজাত জেনারেল স্টোর এবং মেসার্স মুসলীম সুইটস এন্ড বেকারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ওজনযন্ত্রে ভেরিফিকেশন সনদ না থাকায় সিলেটের কালিঘাট রোডের আখি স্টোর ও আলী স্টোরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া মানহীন পণ্য বিক্রি ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরির অপরাধে সুবিদবাজার এলাকার মিতালী রেস্তোরাকে ১০ হাজার, মধুফুলকে ২ হাজার, মোহনা সুপার স্টোরকে ২ হাজার ও ডেইলি সপকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
পঁচা খেজুর বিক্রি করার অপরাধে রাজশাহীর সাহেব বাজার এলাকায় রিপনের খেজুরের দোকানকে ১ হাজার ৫০০ টাকা ও অস্বাস্থ্যকর নোংরা পরিবেশে খাদ্যদ্রব্য সংরক্ষণ করার অপরাধে মেসার্স সেলিম হোটেল এন্ড রেস্টরেন্টকে ৩ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
বিএসটিআই’র লাইসেন্স গ্রহণ না করে দই বিক্রির অপরাধে কুমিল্লার কোটবাড়ি এলাকার মেসার্স সৌদিয়া হোটেল এবং ভেরিফিকেশন সনদ ছাড়াই ওজনযন্ত্রের বানিজ্যিক ব্যবহার করার অপরাধে মেসার্স স্বর্ণালী সুইটস কনফেকশনারী এন্ড স্টেশনারি ও মেসার্স দেব জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
দইয়ের পাত্রে ওজন ও মূল্য উল্লেখ না ধাকায় বগুড়ার সোনাতলা এলাকার মেসার্স সবুজ এন্ড মামুন দধি ভান্ডারকে ২ হাজার ও সিএম লাইসেন্স না থাকায় মেসার্স অদিতি দধি ভান্ডারকে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।