সমকালের সংবাদের প্রতিবাদ দিয়েছে কপারটেক

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০১৯-০৫-১৫ ১৭:৫৬:২০ || আপডেট: ২০১৯-০৫-১৫ ১৯:২৩:২২

পুঁজিবাজারে আসার অপেক্ষায় থাকা কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড দৈনিক সমকালে প্রচারিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে। কোম্পানিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ভুলে ভরা মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রচারের প্রেক্ষিতে জোরালো প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ বাংলাদেশের অন্যত্তম বৃহৎ কপার বার, কপার রড, কপার স্ট্রিপ, কপার তার, কপার পাইপ এবং কপার টিউব প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান। এটি একটি আধুনিক যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ প্রতিষ্ঠান যার উৎপাদিত পন্যের চাহিদা প্রচুর।

কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ ২০১২ সালের ১৬ অক্টোবর প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হিসাবে নিবন্ধিত হয়। যা পরবর্তিতে ২০১৮ সালে ৩১ মে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রূপান্তরিত হয়। কোম্পানিটি ২০১৪ সালের জুন মাস থেকে তাদের উৎপাদন কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। কোম্পানির উৎপাদিত পন্যসমুহ বিদ্যুৎ প্লান্ট, বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার, এসি ও ফ্রিজ তৈরীতে, ইঞ্জিনিয়ারিং কারখানায় ও বৈদ্যুতিক পন্য প্রস্তুতিতে ব্যবহৃত হয়। কোম্পানির কারখানা হরিতোলা, শাহপুর বাজার, মাধবপুর, হবিগঞ্জ এ ২৩৩ শতাংশ জমির উপর অবস্থিত।

কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এন্ড একচেঞ্জ কমিশন বরাবর ২০ কোটি টাকা আইপিও এর মাধ্যমে উত্তোলনের জন্য আবেদন করে। যা কমিশন, ডিএসই ও সিএসই এর পর্যবেক্ষন, পর্যালোচনা ও নিরিক্ষনের পরিপেক্ষিতে ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখের ৬৭০ তম কমিশন সভায় অনুমোদন দেওয়া হয়। কোম্পানির উদ্যোক্তাদের অভিজ্ঞতা, সুনাম এবং ব্যবসায়িক সম্ভাবনা বিবেচনা করে আইপিওতে ১১ লাখ ৭২ হাজার ৯২৯ জন বিনিয়োগকারী (প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী সহ) আবেদন করে। টাকার অঙ্কে ৭৭১ কোটি ৫৫ লাখ ৬৫ হাজার টাকা বা প্রায় ৩৯ গুন। গত ৩০ শে এপ্রিল ২০১৯ তারিখে লটারির মাধ্যমে নির্দিষ্ট সংখ্যক বিনিয়োগকারীদের কে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে কোম্পানিটি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ এবং চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জ এ তালিকাভুক্ত হওয়ার অপেক্ষায় আছে।

এমতাবস্থায় একটি জাতীয় বাংলা দৈনিক এ বিগত ০৫ মে ২০১৯ তারিখে প্রকাশিত “অবিশ্বাস্য তথ্য দিয়েছে কপারটেক” শিরোনামে একটি অজস্র ভুলে ভরা মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রচারের প্রেক্ষিতে আমরা জোরালো প্রতিবাদ জানাছি।

এছাড়াও প্রতিবেদনে উল্লেক্ষিত ইস্যু-ম্যানেজারের যে বক্তব্য প্রকাশ করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে তা স¤পন্ন মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া এবং কল্পনা প্রসুত। প্রকৃতপক্ষে ইস্যুম্যানেজার এর পক্ষ থেকে কোন ধরনের বক্তব্য প্রদান করা হয় নাই। উপরন্তু প্রতিবেদনে দাবিকৃত ৪ সপ্তাহ ধরে যোগাযোগের চেষ্টার তথ্যও মিথ্যা।

এমতাবস্থায়, উক্ত প্রতিবেদনে এই ধরণের বানোয়াট, ভিত্তিহীন, বিভ্রান্তিকর, কল্পনাপ্রসুত ও অসত্য তথ্য পরিবেশনের মাধ্যমে কো¤পানীটির সুনাম ক্ষুণ করার অপচেষ্টা করা হয়েছে । একটি সুপ্রতিষ্ঠিত জাতীয় দৈনিক পত্রিকার মাধ্যমে এই ধরণের সংবাদ প্রকাশে আমরা ব্যথিত। আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ, বিনিয়োগকারী, পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে বিভ্রান্ত না হয়ে নিজ নিজ স্থান থেকে সঠিক পর্যালোচনার আহবান জানাচ্ছি।

উপরন্ত এই প্রতিবাদ লিপির দৈনিক সমকালের ১০ মে, ২০১৯ “প্রাকাশিত সংবাদের ব্যাখ্যা ’’ শিরোনামে প্রতিবেদকের যে বক্তব্য প্রকাশিত হয়েছে উহাও ভিত্তিহীন ও মনগড়া।

 

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ