শুরু হলো দেশব্যাপী উদ্যোক্তা তৈরির যাত্রা

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১১ ১৮:০১:২৯ || আপডেট: ২০১৯-০৭-১১ ১৮:১৩:২১

শুরু হলো দেশব্যাপী উদ্যোক্তা তৈরির যাত্রা । ২০২০ সালের মধ্যে প্রান্তিক মাঠপর্যায়ে ২৪ হাজার উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

আজ বৃহঃস্পতিবার (১১জুলাই) বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) এর উদ্যোগে রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লু-এ ২০২০ সালের মধ্যে প্রান্তিক মাঠপর্যায়ে ২৪ হাজার উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে ‘উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প’-এর প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষনের সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) এর নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান (এমপি), বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মোঃ নজিবুর রহমান, সাজ্জাদুল হাসান (সচিব প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়), মোঃ মোশারফ হোসেন (সচিব, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ) , মোহসিনা ইয়াসমিন (নির্বাহী সদস্য, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ) , নাইমা চৌধুরী (এলআইসিটি কনসালটেন্ট) ও সম্মানিত অতিথি মোঃ আবুল কালাম আজাদ মুখ্য সমন্বয়ক (এজডিজি বিষয়ক) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।

বিশেষ অতিথি প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মোঃ নজিবুর রহমান বলেন “তারুণ্যের শক্তি, বাংলাদেশের সমৃদ্ধি । তরুণ উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়নে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ সেই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে ।

তিনি বলেন “ তারুণ্যের শক্তি, বাংলাদেশের সমৃদ্ধি” প্রকল্পের মাধ্যমে সমৃদ্ধ হবে দেশের তরুণ সমাজ, দেশ ব্যাপী গড়ে উঠবে নতুন নতুন উদ্যোক্তা, প্রশিক্ষকদের দায়িত্ব হবে মাঠ পর্যায়ে থেকে নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টি করা ও সব সময় তাঁদের সহযোগিতা, মনোবল বৃদ্ধি করা।”

সম্মানিত অতিথি মোঃ আবুল কালাম আজাদ প্রকিশক্ষদের উদ্দেশ্যে বলেন , “তরুণরাই একটি দেশের প্রাণশক্তি। তারুণ্যের শক্তি ও গতিশীলতায় একটি দেশ উন্নয়নের চরম শিখরে পৌঁছে যেতে পারে। আমাদের এই মানসিকতা নিয়ে এগোতে হবে যে, নিজে চাকুরী চাই না, চাকুরী দিতে চাই। শক্তি সামর্থ মানসিক মনোবল নিয়ে লড়তে হবে, থাকতে হবে স্বপ্ন দেখার সাহস, নিজেকে গড়ে তুলতে হবে সফল উদ্যোক্তা হিসাবে। সেই সাথে থাকতে হবে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের দৃঢ অঙ্গীকার।”

প্রশিক্ষদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি সালমান ফজলুর রহমান বলেন “ স্বাধীনতা আমাদের সব চেয়ে বড় অর্জন, অহংকার ও প্রত্যাশার যায়গা, স্বাধীনতার এই সুযোগ ব্যবহার করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে অনেক দূর। সেই সাথে জানতে হবে আমাদের ইতিহাস, তুলে ধরতে হবে আমাদের ঐতিহ্য, আত্মবিশ্বাসটা রেখে দিতে নিজের কাজে আমিও পারি এই বিশ্বাসে”।

সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) এর নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম প্রশিক্ষকদের সফল্য কামনা করে বলেন, এ প্রশিক্ষণ সমাপ্তির মাধ্যমে শুরু হলো দেশ ব্যাপী উদ্যোক্তা তৈরির যাত্রা। তিনি এ সময়ে আরো বলেন “ ভবিষ্যৎ যুব সমাজকে দিয়েই গড়তে হবে, আগামী পৃথিবী হবে জ্ঞান ও প্রযুক্তি নির্ভর তাই দক্ষতা অর্জনের কোন বিকল্প নেই, দেশের চৌষট্টি (৬৪) জেলায় আপনাদের মাধ্যমেই তৈরি হবে অসংখ্য উদ্যোক্তা ।

তিনি বলেন আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একজন দক্ষ নির্মাতা, তিনি দিন দিন পালটে দিচ্ছেন বাংলাদেশের চেহারা, এখন বাংলাদেশ এক বিস্ময়ের নাম । উন্নত বাংলাদেশে বিনির্মানের পথে আপানদের কাজটা অনেক বেশি, তৈরি করতে হবে নতুন নতুন উদ্যোক্তা, ভিন্নতর চিন্তাধারায় নিজেদের কে তুলে ধরতে হবে, সেই সাথে কাজ করে যেতে হবে উদ্যোমি চেতনায় প্রবল আত্মবিশ্বাসে ।

অনুষ্ঠানে ৬৪ জন প্রশিক্ষকদের হাতে প্রশিক্ষণ সনদ তুলে দেওয়া হয়, এ সময় বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ও প্রধানমন্ত্রিরর কার্যালয়ের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।