প্লেসমেন্ট শেয়ারে এক থেকে তিন বছরের লক-ইন

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১৬ ১৮:২৫:১১ || আপডেট: ২০১৯-০৭-১৭ ০৭:০৩:২৩

প্লেসমেন্ট শেয়ার বা প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) পূর্ব ইস্যুকৃত শেয়ারে লক-ইন এক থেকে তিনি বছর করা হয়েছে। শেয়ারহোল্ডারদের বিভিন্ন ধরণের অবস্থা অনুযায়ী এটি করেছে কমিশন। আজ আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ৬৯৩তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিএসইসি সূত্র মতে, প্রসপেক্টাসের সংক্ষিপ্ত সংস্করন প্রকাশের দিনের পরিবর্তে লেনদেন শুরুর দিন থেকে গণনা করা হবে। তবে প্লেসমেন্ট শেয়ার ইস্যুর পরে আইপিও অনুমোদনে ৪ বছরের বেশি সময় লাগা কোম্পানির ক্ষেত্রে ১ বছর লক-ইন করা হয়েছে।

সূত্র মতে, উদ্যোক্তা/পরিচালক ও ১০ শতাংশ বা তার বেশি শেয়ারধারনকারীদের জন্য ৩ বছর লক-ইন প্রযোজ্য হবে। এছাড়া উদ্যোক্তা/পরিচালক ও ১০ শতাংশ বা তার বেশি শেয়ারধারনকারীদের হস্তান্তরকৃত শেয়ারে লক-ইন ৩ বছর, আইপিওর ৪ বছরে পূর্বে ইস্যুকৃত শেয়ারে ১ বছর, অল্টারনেটিভ ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের ক্ষেত্রে ১ বছর ও বাকি অন্যসব শেয়ারে ২ বছর লক-ইন রাখা হবে।

এর আগে ২৯ এপ্রিল স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে এক বৈঠকে আইপিওকালীন সকল শেয়ারে ৩ বছর লক-ইন রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিএসইসি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ