পোশাক শ্রমিকদের বেতন-বোনাস নিয়ে অসন্তোষের আশঙ্কা নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০১৯-০৮-০৯ ১০:২৪:২৯ || আপডেট: ২০১৯-০৮-০৯ ১০:২৪:২৯

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে তৈরি পোশাক শ্রমিকদের বেতন-বোনাস নিয়ে এখন পর্যন্ত কোনো ধরনের অসন্তোষের আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। একই সঙ্গে শ্রমিক-মালিক সু-সম্পর্ক বিদ্যামান থাকায় এবং মালিক-শ্রমিক সবার সহযোগিতায় শ্রমিকেরা আগামী ঈদুল আজহা সুন্দরভাবে উদযাপন করতে পারবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর, বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএ এমন ইতিবাচক দিয়েছে বলে বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) জানানো হয়েছে। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সারাদেশে বিজিএমইএ এর সদস্যভুক্ত চলমান কারখানা সংখ্যা প্রায় ৩ হাজার ৪০০ এর মধ্যে এ পর্যন্ত ৯৫ শতাংশ কারখানার শ্রমিকদের বোনাস পরিশোধ করা হয়েছে। আগামী দু’এক দিনের মধ্যে বাকি পাঁচ শতাংশও পরিশোধ হবে।

এদিকে বিজিএমইএ এর কারখানাগুলো শ্রমিকদের জুলাই মাসের বেতন বৃহস্পতিবার, শুক্রবার এবং ১০ আগস্ট দেবে। ঈদের ছুটির আগেই সব কারখানার মালিক শ্রমিকের বেতন-বোনাস পরিশোধ করবেন।

মন্ত্রণালয়ের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, বিকেএমইএ সদস্যভুক্ত চলমান কারখানার সংখ্যা ১০৮৩। বুধবার পর্যন্ত শতকরা ৯২ শতাংশ কারখানা শ্রমিকদের বোনাস প্রদান করেছে। বাঁকিগুলো বৃহস্পতি-শুক্রবারের মধ্যে পরিশোধ করবে।

বিকেএমইএ এর সদস্যভুক্ত কারখানাগুলোর শ্রমিকদের জুলাই মাসের বেতনও প্রায় ৫০ শতাংশ দেওয়া হয়েছে বলে ওই জানানো হয়েছে ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে।

কলকারখানা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ এবং চট্টগ্রামের উপ-মহাপরিদর্শকেরা জানিয়েছেন, বেতন-বোনাস নিয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত পরিবেশ পরিস্থিতি সন্তোষজনক।

ঢাকার উপ-মহাপরিদর্শক আহমেদ বেলাল এবং গাজীপুরের উপ-মহাপরিদর্শক মো. ইউসুফ আলী জানান, বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ বোনাস প্রদানের যে হারের কথা জানিয়েছে-সেটা কিছুটা কম। বোনাস পরিশোধের হার বুধবার পর্যন্ত ৮০ থেকে ৮৫ শতাংশ হবে। আর জুলাই মাসের বেতন শতকরা প্রায় ৪০ শতাংশ দেওয়া হয়েছে। বাকি শ্রমিকদের বেতন বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবারের মধ্যে পরিশোধ করবেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ