‘দুলহন কোর্স’, সুখে সংসারের পাঠ পড়াবে সংস্থা

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৮ ১৪:০৯:২১ || আপডেট: ২০১৯-০৯-০৮ ১৪:০৯:২১

তাই আজও কোনও দম্পতির বিবাহ বিচ্ছেদ হলেই মহিলাদের দায়িত্ববোধেই প্রশ্ন তোলা হয়। তাই সুখে সংসার করার পাঠ পড়াচ্ছে হায়দরাবাদের এক সংস্থা। হায়দরাবাদের বলরেড্ডি নগরের এই সংস্থা দম্পতিদের দুলহন কোর্স করাচ্ছে।

সংসার সুখের হয় রমণীর গুণে। এই প্রবাদ সকলেরই জানা। তবে এই প্রবাদ যে সমাজের চাপিয়ে দেওয়া তা নিঃসন্দেহে বলাই যায়। সংসার ভাঙলে তাই আজও মহিলাদের দিকেই অধিকাংশ আঙুলগুলি ওঠে। নারী ও পুরুষের সমান অধিকারের জন্য দেশ বিদেশের বিভিন্ন প্রান্তে মানুষ অনবরত লড়ে যাচ্ছে। কিন্তু সমাজের গভীরে একটু নজর রাখলেই বোঝা যায় পুরুষতন্ত্র কতটা মজ্জাগত হয়ে রয়েছে।

এই কোর্সের মধ্যে রয়েছে প্রি-ম্যারেজ ও পোস্ট ম্যারেজ ট্রেনিং, অর্থাৎ বিয়ের আগে ও পরে কী ভাবে সুখ ও শান্তি বজায় রাখা যাবে তার প্রশিক্ষণ। এর সঙ্গেই রয়েছে সেরা মা হয়ে ওঠার প্রশিক্ষণও।

দুলহন কোর্সের মধ্যে রয়েছে রান্না, সেলাই, টাকা পয়সার হিসেব ও সাজগোজের টিপস। সংস্থার দাবি, এই কাজগুলি শিখলে পরিবারে শান্তি বজায় থাকবে।

এই কোর্সটি ২ বছর আগে শুরু করেছিলেন হায়দরাবাদের ইমাম ইলয়াস শামসি। তিনি বলছেন, ভারতে ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তারির প্রশিক্ষণের অনেক সংস্থা রয়েছে। কিন্তু সুখী দাম্পত্য বজায় রাখার প্রশিক্ষণের কোনও ব্যবস্থা নেই।

প্রতি মাসে ৫ হাজার টাকায় এই বিষয়ে সেমিনার ও ওয়র্কশপও করাচ্ছে এই সংস্থা। তবে এই কোর্সটি বিগত ২ বছর ধরে চলছে। কিন্তু সম্প্রতি এই সংস্থা বিজ্ঞাপন দিতেই তা ছড়িয়ে পড়ে।

ইমামের কথায়, ইচ্ছে করেই নজর কাড়তে এই কোর্সের নাম রাখা হয়েছে দুলহন কোর্স। হোম ম্যানেজমেন্ট হলে কে-ই বা গুরুত্ব দিতেন! এই বিজ্ঞাপন দেওয়ার পরে আমি রোজ প্রায় ৫০ থেকে ৬০ টি ফোনকল পাচ্ছি। অধিকাংশই প্রশংসা করছেন।

বলাই বাহুল্য এই সংস্থাও পরোক্ষ ভাবে সংসার সুখের করার জন্য রান্না, ঘরের কাজ ও মহিলাদেরই দায়ী করছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ