‘আমদানি মাংস দেশি উদ্যোক্তা-খারামী ধ্বংস করবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৯ ১৪:২২:২৪ || আপডেট: ২০১৯-০৯-০৯ ১৪:২৪:৪৯

বিদেশ থেকে অবাধে হিমায়িত মাংশ আমদানি করলে দেশীয় উদ্যোক্তারা ও প্রান্তিক খামারীরা  চরমভাবে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন হবে বলে জানিছেন অ্যানিমেল অ্যাসেসিয়েশনের নেতারা।

সোমবার (০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং) জাতীয় প্রেসের ভিআইপি লাউঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে নেতারা এ কথা বলেন।

নেতারা আরো বলেন,  আমাদানির ফলে বিশাল উদ্যোক্তা সমাজ বেকার হয়ে পড়বে। যার প্রভাব ব্যাপক ভাবে গ্রামীণ অর্থনীতি ,সামাজিক নিরাপত্তা, খাদ্য নিরাপত্তা ও কৃষি ক্ষাতে পড়বে।

তারা বলেন,  বর্তমানে দেশের অনেক শিক্ষিত বেকার যুবক ও নারীরা গরু মোটা তাজা করণ এবং দুগ্ধ শিল্পে নিজেদের আত্ননিয়োগ করেছেন। সরকার ও সল্প সুদে ডেইরি শিল্পের জন্য ঋণের ব্যাবস্থা করেছেন।যার  ফলস্রুতিতে অত্যন্ত স্বল্প সময়ে কোরবানীর জন্য দেশীয় গবাদি-পশুর মাধ্যমে সম্পুর্ণ যোগান দেয়া সম্ভব হয়েছে।বর্তমান ব্যবস্থা বহাল থাকলে আশা করি এ শিল্প আরো বিকোশিত হবে।

তারা আরো বলেন,  কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের সাথে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে , বিদেশ থেকে হিমায়িত মাংস আমদামি সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবনা বর্তমানে সরকারের সক্রিয় বিবেচনাধীন রয়েছে ।নিন্মবর্নিত যোক্তিক কারণে বাংলাদেশ তথা এ দেশের বৃহত্তর জনগণের স্বার্থে আমরা হিমায়িত গরুর মাংস আমদানি প্রক্রিয়াটি বন্ধ করার জন্য সরকারের নিকট আবেদন জানাচ্ছি।

সভায় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে ডেইরি ও ক্যাটাল শিল্প একটি বিকাশমান শিল্প। স্বাধীনতার পরবর্তি সময় থেকে আজঅব্দি এ শিল্প যতটা প্রবৃদ্ধি অর্জন করার কথা ছিলো, তা সম্ভব হয়নি, শুধু মাত্র বিদেশী গরুর অবাধ বাণিজ্যের কারণে। ডেইরি ও ক্যাটাল শিল্প বাংলাদেশে একটি মৌলিক শিল্প।মৌলিক শিল্পে বিদেশি আমদানি গ্রহণ যোগ্য নয়।এ শিল্পের সাথে জড়িত রয়েছে গ্রাম বাংলার  কোটি কোটি পরিবার ও খামারীর জীবন- জীবিকা।

উল্লেখ্য,  দেশে বার্ষিক মাংসের চাহিদা প্রায় ৭৩ লক্ষ মেট্রিক টন। গত ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগী থেকে মোট মাংস উৎপাদিত হয়েছে ৭৫.১৮ লক্ষ মেট্রিক টন। অর্থাৎ ২.১৭ লক্ষ মেট্রিক টন উদ্বৃত্ত। এর মধ্যে গরু- ছাগলের মাংস মোট মাংসের ৫৫ শতাংশ।

আলোচনা সভায় অ্যানিমেল হেলথ কোম্পানি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর পরিচালক ডা. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ভেটেনারী অ্যাসোসিয়েশন এর মহাসচিব ডা. হাবিবুর রহমান মোল্লা, ভেট এক্স এর জেনেরাল সেক্রেটারী ডা. সাইফুল বাশার, বিডিএফএ এর সেক্রেটারী ডা. শাহ এমরান, বেঙ্গল মিটের সাইদুল হক ভূইয়া, মুমিনুর দোলাসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

সানবিডি/এসআই/এসএস

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ