হিজাব পরা নারী মেজরকে  খালাস দিল দক্ষিণ আফ্রিকা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-০১-২৩ ১৭:১৪:৩১ || আপডেট: ২০২০-০১-২৩ ১৭:১৪:৫৪

মুসলিম রীতি মেনে সামরিক টুপির নিচে হিজাব পরায় অভিযুক্ত করা এক মুসলমান নারী অফিসারকে খালাস করে দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার সেনাবাহিনী। বুধবার আইনজীবীদের বরাতে বার্তা সংস্থা এএফপি এমন খবর দিয়েছে।

২০১৮ সালের জুনে মেজর ফাতিমা আইজ্যাকের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অভিযোগ আনা হয়েছিল। উর্দি পরার সময় হিজাব সরাতে ঊর্ধ্বতনের আইনসঙ্গত নির্দেশ অমান্য করার অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে।-খবর এএফপির

কিন্তু তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন কেপটাউনের কাছেই ক্যাশল অব গুড হোপে একটি সামরিক আদালত। সেনাবাহিনী এখন তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার সেনাবাহিনী জানায়, তারা তাকে হিজাব পরতে অনুমতি দেবে। এমন হিজাব পরতে হবে, যাতে তার কান ঢেকে না যায় এবং সেটি অবশ্যই রঙে সাধারণ হতে হবে।

ওই সেনা কর্মকর্তার আইনজীবী অ্যামি লিয়া ফেইন বলেন, কিছু বিধিনিষেধ মানার শর্তে তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে। ধর্মীয় পোশাক পরিধানে বিধিনিষেধের ওপর ইকোয়ালিটি কোর্টে চ্যালেঞ্জ জানাবেন তিনি।

গত ১০ বছর ধরে একজন ক্লিনিক্যাল ফরেনসিক প্যাথলজিস্ট হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার সেনাবাহিনীতে কাজ করে যাচ্ছেন ফাতিমা।

আইনজীবী ফেইন বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেয়ায় কিছু স্বস্তি মিলেছে। কিন্তু এতে অসাংবিধানিক পোশাকনীতির কোনো সুরাহা হচ্ছে না। কার্যত এ নীতিই কার্যকর থেকে যাচ্ছে।

ওয়েস্টার্ন কেইপপ্রদেশের সেনা মুখপাত্র কর্নেল লুইস কিরসটিন বলেন, পোশাক পরিধানের নীতি মুসলিম বিচারিক পরিষদের সঙ্গে কথা বলেছেন সশস্ত্র বাহিনী।

সানবিডি/এনজে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ