টেকনাফে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৮ ১২:৩১:৩৩ || আপডেট: ২০২০-০৩-২৮ ১২:৩১:৩৩

কক্সবাজারের টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে চারজন নিহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে বিপুল সংখ্যক ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

বিজিবি সূত্রে জানা যায়, মাদকের একটি বড় চালান মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করেছে-এমন খবরে আজ শনিবার ভোররাতে বিজিবি সদস্যরা মাদক পাচারের ঘাঁটি হিসেবে খ্যাত হ্নীলা ইউনিয়ন লেদা নাফ নদী সংলগ্ন ছুরিখাল এলাকা অভিযান চালায়। সেখানে অন্ধকারের মধ্যে ৪/৫ জন লোক একটি নৌকা নিয়ে নাফ নদী পার হয়ে ছুরিখাল এলাকায় প্রবেশ করতে দেখে বিজিবি তাদের চ্যালেঞ্জ করে দাঁড়ানোর সংকেত দেয়।

কিন্তু মাদক কারবারীরা বিজিবির উপস্থিতি বুঝতে পেরে নৌকা থেকে লাফ দিয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে বিজিবি সদস্যরা তাদের ধাওয়া করে। এ সময় তারা বিজিবি সদস্যদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে। এতে বিজিবির তিন সদস্য আহত হয়। বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। উভয় পক্ষের মধ্যে প্রায় ৫/৬ মিনিট গুলিবিনিময় হয়।

পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার পর ঘটনাস্থল থেকে বিজিবি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় অজ্ঞাতনামা তিন যুবককে উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের পাঠায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ ২ বিজিবি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. ফয়সল হাসান খান (পিএসসি) জানান, ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ৫ কোটি ৪০ লাখ টাকা মুল্যের ১ লাখ ৮০ হাজার ইয়াবা, দেশীয় তৈরি ২টি বন্দুক, ৩ রাউন্ড কার্তুজ, ১টি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে গোলাগুলিতে নিহত হওয়া তিন ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে, পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মুসা আকবর নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। শনিবার গভীর রাত দেড়টার দিকে টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়ন তুলাতলি এলাকায় মাদক পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে- থানা পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় মাদক কারবারে জড়িত অপরাধীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের লক্ষ্য করে গুলিবর্ষ করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়।

গোলাগুলি থেমে যাওয়ার পর ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক ব্যক্তিকে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ব্যক্তি হোয়াইক্যং ইউনিয়ন তুলাতলী এলাকার আবুল বশরের ছেলে মুসা আকবর (৩৬)।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস বলেন, ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ৬ হাজার ইয়াবা, দেশীয় তৈরি ১টি অস্ত্র, ৩ রাউন্ড কার্তুজ, ৬ রাউন্ড কার্তুজের খালি খোসা উদ্ধার করা হয়েছে।
সানবিডি/ঢাকা/এসএস

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ