সরকার স্বাস্থ্যসেবা সবার দৌরগোড়ায় পৌঁছে দিতে চায়: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২২-১১-২৫ ২১:০১:২১


তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘সরকার স্বাস্থ্যসেবা সবার দৌরগোড়ায় পৌঁছে দিতে চায়। এ লক্ষে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এরইমধ্যে নানা উদ্যোগ নিয়েছেন। সবার স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারিভাবেও সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন উপলক্ষে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের (চমেক) শাহ আলম বীর উত্তম অডিটরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় কেক ও ফিতা কেটে হার্ট ফাউন্ডেশন এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ব্যক্তিগত অভিমত উল্লেখ করে এসময় তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় দুটি কাজ ভুল হয়েছে। একটি শিক্ষার বাণিজ্যকরণ ও অন্যটি স্বাস্থ্যের বাণিজ্যকরণ। এই দুটি ভুলের কারণে সাধারণ মানুষের জন্য বড় বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ও চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের সভাপতি আহমেদ কায়কাউসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী, চমেকের অধ্যক্ষ ডা. সাহেনা আকতার প্রমুখ।

চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের সদস্য এসএম আবু তৈয়বের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে পাওয়ার প্রেজেন্টের মাধ্যমে চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন ফাউন্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. প্রবীর কুমার দাশ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্যসেবায় চট্টগ্রাম এখনও পিছিয়ে আছে। তবে দেশের স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করাসহ নানা উদ্যোগ নিয়েছেন। এছাড়াও তিনি সবার জন্য স্বাস্থ্য বীমা চালুর উদ্যোগ নিয়েছেন।’

দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপট অনেক বদলে গেছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘একসময় মা আমাকে বাসি ভাত খেতে দেন-এমন অনেককে ঘরের দরজার সামনে এসে বলতে শোনা যেত। কিন্তু এখন বাসি ভাতের সেই ভিক্ষুক আর নেই। একসময় চট্টগ্রামের জহুর হকার্স মার্কেটে শুধু পুরাতন কাপড় বিক্রি করা হতো। এখন সেখানে সব নতুন ও বিদেশি কাপড় বিক্রি করা হয়। আমাদের দেশের কাপড় এখন বিদেশে যাচ্ছে। এখন বেশিরভাগ দেশে গিয়ে দেখি কাপড়ের পেছনে লেখা মেইড ইন বাংলাদেশ।’

এসময় মন্ত্রী চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল যেন বড় লোকদের জন্য নয়; সাধারণ মানুষদের জন্য হয় সেদিকে নজরে রাখতে এবং হৃদরোগের সব সেবা যাতে সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে থাকে সেজন্য হার্ট ফাউন্ডেশনের সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানান।

চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল প্রসঙ্গে সংগঠনের স্বপ্নদ্রষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ডা. আহমদ কায়কাউস বলেন, ‘হাসপাতালের জন্য ইতোমধ্যে আমরা জঙ্গল সলিমপুরে ৭ একরের বেশি জমিও বরাদ্দ পেয়েছি। আশা করছি সকলের সহযোগিতায় অল্প সময়ের মধ্যে হাসপাতাল স্থাপনের কাজ শুরু করতে পারবো। তবে তার আগেই শনিবার থেকে নগরের গোলপাহাড় এলাকায় চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের অস্থায়ী ভবনে আউটডোর সেবা কার্যক্রম শুরু হবে।’

সাধারণ মানুষরা যাতে হৃদরোগের যাবতীয় চিকিৎসা সেবা এখান থেকে নিতে পারেন তার সকল ব্যবস্থা ও উদ্যোগ নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

এসময় হাসপাতালের অবকাঠামোগত নকশাসহ যাবতীয় বিষয় তুলে ধরা হয়।

চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের উদ্যোক্তারা জানান, চট্টগ্রাম নগরের গোলপাহাড় মোড়ে আজ শনিবার থেকে বহির্বিভাগে সেবাদানের মধ্যে দিয়ে চালু হবে হৃদরোগের জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম। দূর-দূরান্ত থেকে এসে রোগীরা এখান থেকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা নিতে পারবেন। চট্টগ্রাম হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল বিশ্বমানের আধুনিক হাসপাতাল। এই হাসপাতালটি চালুর মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামবাসীকে আর ঢাকা কিংবা বিদেশ যেতে হবে না। এখানে পাওয়া যাবে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধায়নে বিশ্বমানের আধুনিক সেবা।

এএ

Print Print