ফ্লোর প্রাইস তুলে দেওয়াটা যুক্তিযুক্ত; গতি পাবে লেনদেনে

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০২১-০৪-০৮ ০৮:৪৬:২৭ || আপডেট: ২০২১-০৪-০৮ ০৮:৪৬:২৭

ফ্লোর প্রাইস তুলে দেওয়াটা যুক্তিযুক্ত বলে মনে করেন পুঁজিবাজার বিশ্লেষক অর্থনীতিবিদ আবু আহমেদ। অন্যদিকে ফ্লোর প্রাইস তুলে দেওয়ার ফলে লেনদেনে গতি বাড়বে বলে মনে করেন বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি মো. ছায়েদুর রহমান।

দীর্ঘ একবছর পর ফ্লোর প্রাইস থেকে ছাড়া পাচ্ছে পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত ৬৬ কোম্পানি। গতকাল নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৭৬৯তম নিয়মিত সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আজ (বৃহস্পতিবার) থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ।

২০২০ সালে বিশ্বব্যপী শুরু হওয়া করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর পুঁজিবাজারে ভয়াবহ দরপতন দেখা দেয়। পরে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শে সাবেক কমিশন তালিকাভুক্ত সিকিউরিটিজের সর্বনিম্ন মূল্য বেঁধে দেয়। ফ্লোর প্রাইস আরোপ করা হয় ২০২০ সালের ১৯ মার্চ। নতুন কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর এটিকে চালু রাখেন।

বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও কোনো কোনো ক্ষেত্রে ফ্লোর প্রাইস নিয়ে বিতর্ক চলছিলো। বিশেষ করে কোম্পানির বোনাস লভ্যাংশ ও রাইট শেয়ার ইস্যুর পরও ফ্লোর প্রাইসের কারণে প্রকৃত দর সমন্বয় হচ্ছিলো না। এমন পরিস্থিতিতে ফ্লোর প্রাইস রিভিউ করার সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন। তবে সমন্বয়ের পর যে দর নির্ধারণ হবে তা সংশ্লিষ্ট কোম্পানির প্রাইস ফ্লোর হিসেবে বিবেচিত হবে।

বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা। তারা মনে করেন এর ফলে বাজারের গতি ফিরবে। এর ফলে আটকে থাকা বিনিয়োগকারীরা কিছুটা হলেও শস্তি পাবে।

কোন পদ্ধতিতে এই ৬৬ কোম্পানির ফ্লোর প্রাইস উঠানো হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, একটি মানদন্ডের মাধ্যমে এটি করা হয়েছে। গত ৫ এপ্রিল ফ্লোর প্রাইসে ছিলো ১১০টি কোম্পানি। এর মধ্যে যেগুলো ৫০ টাকা নিচে আছে, সেগুলোর ফ্লোর প্রাইস তুলে দেওয়া হয়েছে।

কবে থেকে কার্যকর হচ্ছে বিএসইসির এই নির্দেশনা এই বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসইর প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা মো. সাইফুর রহমান মজুমদার বলেন, আজ বৃহস্পতিবার থেকে কার্যকর করা হবে।

পুঁজিবাজার বিশ্লেষক অর্থনীতিবিদ আবু আহমেদ বলেন, ফ্লোর প্রাইস তুলে দেওয়াটা যুক্তিযুক্ত হয়েছে। কারণ দীর্ঘদিন ফ্লোর প্রাইসে রাখা ঠিক না। বিশ্বের কোথাও এই ধরণের পদ্ধতি নেই। ফ্লোর প্রাইসের কারণেন অনেক টাকা আটকে আছে। বিএসইসির এই সিদ্ধান্তের কারণে আটকে থাকা বিনিয়োগকারীরা বের হতে পারবে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. ছায়েদুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ফ্লোর প্রাইসের কারণে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের অনেক টাকা আটকে আছে। এর ফলে বিনিয়োগকারীরা একটু স্বস্তি পাবে। একই সাথে বাজারে লেনদেনের গতি বাড়বে।

ফ্লোর প্রাইস তুলে দেওয়া ৬৬ কোম্পানি হলো- পিপলস লিজিং, আরএন স্পিনিং, বাংলাদেশ সার্ভিস, আইএফআইএস ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড-১, জাহিন স্পিনিং, রিং শাইন, অলিম্পিক এক্সেসরিজ, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ফনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, নূরানী ডাইং, রিজেন্ট টেক্সটাইল, এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ড, ইভিন্স টেক্সটাইল, প্যাসিফিক ডেনিম, মেট্রো স্পিনিং, কাট্টলি টেক্সটাইল, ফার কেমিক্যাল, দেশবন্ধু পলিমার, ইয়াকিন পলিমার, সাফকো স্পিনিং, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, সেন্ট্রাল ফার্মাসিটিক্যালস, বিচ হ্যাচারি, সিনটেক্স ইন্ডাস্ট্রিস, শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, হামিদ ফেব্রিক্স, প্রাইম টেক্সটাইল, সায়হাম কটন, বাংলাদেশ বিল্ডিং, গোল্ডেন হার্ভেস্ট, এএফসি এগ্রো, বেঙ্গল উইন্ডোজ, খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং, সিলভা ফার্মাসিটিক্যালস, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিটিক্যালস, আর্গন ডেনিম, কপারটেক, শাশা ডেনিমস, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ, এস্কয়ার নিটিং, ভিএফএস থ্রেড ডাইং, আইপিডিসি ফাইন্যান্স, ফিনিক্স ফাইন্যান্স, অ্যাডভেন্ট ফার্মা, রতনপুর স্টিল রি-রোলিং মিলস, কুইন সাউথ টেক্সটাইল, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, ওয়াইম্যাক্স ইলেকট্রোড, রূপালী ব্যাংক, সায়হাম টেক্সটাইল, সোনারগাঁ টেক্সটাইল, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ, গ্লোবাল হেভি কেমিক্যাল, নাভানা সিএনজি, ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই, ইউনিক হোটেল, স্ট্যান্ডার্ড ইন্সুরেন্স, ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্স, উত্তরা ফাইন্যান্স, উসমানিয়া গ্লাস সিট, খুলনা পাওয়ার, নাহি এলমনিয়াম, দুলামিয়া কটন, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল এবং এম এল ডাইং।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •