সম্ভাবনা দেখাচ্ছে ৮০০ কোটি টাকার মাশরুমের বাজার

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২২-০১-১২ ১৮:২৭:১২ || আপডেট: ২০২২-০১-১২ ১৮:২৭:১২

দেশে উদ্যোক্তা ও চাষিরা মিলে গড়ে তুলেছেন বছরে ৮০০ কোটি টাকার মাশরুম বাজার।মাশরুম উন্নয়ন ইনস্টিটিউটের হিসাবে ১০ বছরে দেশে মাশরুমের বাজার চার গুণ বড় হয়েছে।

এ বিষয়ে মাশরুম উন্নয়ন ইনস্টিটিউটের পরিসংখ্যান অনুসারে, ২০০৯-১০ সালে দেশে মাশরুম উৎপাদন হয়েছিল ১০ হাজার মেট্রিক টন। ২০১৯-২০ সালের হিসাব বলছে, চার গুণ উৎপাদন বেড়েছে। এ সময় ৪০ হাজার টন মাশরুম উৎপাদন হয়েছে। ২০১৮-১৯ সালে মাশরুমের উৎপাদন ছিল ৪২ হাজার টন। ইনস্টিটিউটের ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশে এখন মাশরুমের বাজার ৮০০ কোটি টাকার।

ইনস্টিটিউটের হিসাবে বর্তমানে দেশব্যাপী বড় খামারি রয়েছেন এক হাজারের ওপরে। বড় খামারি বলতে কমপক্ষে দৈনিক ১০ থেকে ১৫ কেজি মাশরুম উৎপাদন করেন এমন ব্যক্তিকেই ধরে তারা। ছোট অনেক উদ্যোক্তা রয়েছেন দেশের আনাচে-কানাচে।

দেশে যে পরিমাণ মাশরুম উৎপাদন হয় তার পুরোটাই দেশের চাহিদা মেটাতে লাগে। বাজারে ভালো দাম পাওয়ায় রপ্তানির আগ্রহও উদ্যোক্তাদের মধ্যে কম। তবে দেশের বাইরেও মাশরুমের বেশ চাহিদা রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র, চীন, জার্মানি, জাপান, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ কোরিয়া, কানাডা, নেদারল্যান্ডস ও ভারত এই ১০টি দেশে মাশরুমের চাহিদা সবচেয়ে বেশি।

বাংলাদেশের মাশরুম উৎপাদকরা বলছেন, দেশে মাশরুমের বাজার বড় হচ্ছে। এ খাতে তরুণ উদ্যোক্তাদের আগ্রহ বাড়ছে। সেই সঙ্গে ভোক্তাদের অনেকে খাদ্য তালিকায় মাশরুম যোগ করছেন। আর ওষধি গুণের কারণে ডায়াবেটিকসহ নানা রোগের পথ্য হিসেবেও ব্যবহার হচ্ছে মাশরুম।

সানবিডি/এনজে