ওয়াদা চাই, আগামী নির্বাচনেও ভোট দিয়ে সেবা করার সুযোগ দেবেন

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২২-১১-২৪ ১৭:৫৪:০৯


আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে আমাদেরকে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন। আমি আপনাদের কাছে ওয়াদা চাই, আগামী নির্বাচনেও আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দেবেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে যশোরের শামস-উল হুদা স্টেডিয়ামে আয়োজিত জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেকে আমাদের রিজার্ভ নিয়ে কথা বলে, রিজার্ভ গেল কোথায়? রিজার্ভ কোথাও যায়নি। রিজার্ভ মানুষের কাজে লেগেছে। যেহেতু যুদ্ধ লেগেছে, নিষেধাজ্ঞা, যে গম ২০০ ডলারে আনতাম সেই গম এখন ৬০০ ডলার। তারপরও আমরা কিনে নিয়ে এসেছি, আমাদের দেশের মানুষের জন্য। ভুট্টা, সার, প্রত্যেকটা জিনিসের দাম বেড়েছে আন্তর্জাতিকভাবে। পরিবহন খরচ বেড়েছে, তারপরও আমরা খরচ করছি এবং কিনে নিয়ে আসছি, আমার দেশে কোনো মতে যেন খাদ্য ঘাটতি না দেখা দেয়। সে জন্য আমি দেশের মানুষের প্রতি আহ্বান করেছি, ১ ইঞ্চি জমি যাতে অনাবাদি না থাকে। প্রত্যেকটা জমি আবাদ করতে হবে। যাতে করে আমাদের কোনোদিন খাদ্য ঘাটতি না হয়। কারো কাছে হাত পেতে-চেয়ে চলতে না হয়।

যে বাংলাদেশকে খালেদা জিয়া রেখে গিয়েছিল; প্রায় ৪০ ভাগ মানুষ দরিদ্রসীমার নিচে বাস করতো। এটাকে আমরা কমিয়ে ২০ ভাগে এনেছি। আমরা যদি আরও কমাতে পারতাম তাহলে বাংলাদেশে দরিদ্র বলে কেউ থাকতো না। হত দরিদ্র ২৫ ভাগ ছিল, সেটা আমরা ১০ ভাগে নামিয়ে এনেছি। আমরা মানুষের কথা চিন্তা করি। করোনার সময় আমরা নগদ অর্থ বিতরণ করেছি মানুষের মধ্যে। এমন কোনো শ্রেণি-পেশার মানুষ নেই যাদের আমরা সহযোগিতা করিনি। যেসব স্কুল এমপিওভুক্ত না, সেসব শিক্ষকের কাছেও আমি টাকা পাঠিয়েছি। মসজিদের ইমাম-মোয়াজ্জিন থেকে শুরু করে আমাদের শিল্পী, প্রত্যেককে আমরা সহযোগিতা দিয়েছি। আমরা এ দেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি। টাকা আমরা জনগণকে দিয়ে দিয়েছি। গ্রামে গ্রামে টাকা পাঠিয়েছি যেন করোনার সময় কোনো মানুষের কষ্ট না হয়। বিনা পয়সায় খাদ্য দিয়ে যাচ্ছি, বলেন শেখ হাসিনা।

যশোরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, গুজবে কান দেবেন না। বিএনপির কাজই হচ্ছে সব সময় গুজব ছড়ানো। ওরা নিজেরা কিছু করতে পারে না। ক্ষমতায় যখনই এসেছে, লুটপাট করে খেয়েছে। ৯৬ সালে আমি যখন সরকার গঠন করি, তার আগে বিএনপি ছিল ক্ষমতায় ২ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রিজার্ভ রেখে গিয়েছি। ২০০৯-এ যখন দ্বিতীয়বার সরকার গঠন করলাম, তার আগে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছিল, রিজার্ভ ছিল ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

এএ

Print Print