প্রকাশক হত্যার প্রতিবাদে বই বিক্রি বন্ধ

|| প্রকাশ: ২০১৫-১১-০১ ১৪:১৬:১০ || আপডেট: ২০১৫-১১-০১ ১৫:০৩:১০

ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

দুই প্রকাশকের ওপর হামলার প্রতিবাদে আগামীকাল সোমবার সকাল ​থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সারাদেশে বই বিক্রি বন্ধ থাকবে। আজ রোববার বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির এক সভায় এই সিদ্ধান্ত ​নেওয়া হয়।

সংগঠনের কেন্দ্রীয় ও রাজধানী কমিটির যৌথসভায় সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আলমগীর শিকদার।

সভা শেষে আরও জানানো হয়েছে, আগামীকাল সোমবার থেকে তিন দিন বাংলা বাজারে সংগঠনের প্রধান কার্যালয়ে কালো পতাকা উত্তোলন, ২ নভেম্বর কালোব্যাজ ধারণ, মৌন মিছিল, হামলার বিচার চেয়ে ঢাকার জেলা প্রকাশকের কাছে স্মারকলিপি পেশ ও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এদিকে আজ রোববার বিকেল ৩টায় রাজধানীর শাহবাগসহ সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে গণজাগরণ মঞ্চ। গণজাগরণ মঞ্চের মূখপাত্র ডা. ইমরান এইচ. সরকার গতকাল এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, প্রকাশক হত্যা এবং প্রকাশক-লেখক-ব্লগারের ওপর হামলার ঘটনায় বার বার ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। সরকারের ভেতর থেকে পৃষ্ঠপোষকতা না থাকলে এ ধরনের ঘটনা ঘটানো সম্ভব নয়। কোনো মানুষই এখন আর নিরাপদ নয়। আগে ব্লগারদের হত্যা করা হচ্ছিল, এখন মুক্তমনা প্রকাশকদেরও হত্যা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, শুদ্ধস্বর প্রকাশনা কর্ণধার আহমেদুর রশীদ টুটুল, কবি তারেক রহিম ও ব্লগার রণদীপম বসুকে গতকাল শনিবার দুপুরের দিকে লালমাটিয়ার সি ব্লকের পাঁচতলা ভবনের চারতলায় শুদ্দস্বরের কার্যালয়ে থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করা হয়। দরজার বাইরে তালা লাগিয়ে দৃর্বৃত্তরা চলে যাওয়ার পর আহতদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান স্থানীয়রা।

এরপর বিকেল ৪টার আজিজ সুপার মার্কেটের জাগৃতি প্রকাশনার কার্যালয় থেকে প্রতিষ্ঠানটি কর্ণধার ফয়সাল আরেফিন দীপনের রক্তাক্ত শরীর উদ্ধার করা হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সন্ধ্যায় চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সানবিডি/ঢাকা/এসএস