৬৩ হাজার উদ্যোক্তাকে এসএমই ঋণ দিয়েছে ইসলামী ব্যাংক

প্রকাশ: ২০১৫-১১-০৮ ১৩:৫১:২৮

IBBL 08.11.15হালিমা খাতুন কুষ্টিয়ার কুমারখালীর গৃহবধূ। ছোটবেলা থেকেই তিনি একটু ব্যতিক্রম চিন্তা করতেন। পড়াশোনা শেষ করে চাকরির পেছনে ছোটেননি তিনি। চেষ্টা করেছেন স্বাবলম্বী হতে। উদ্যোক্তা হওয়ার অদম্য ইচ্ছা ছিল তার। নিজ উদ্যোগে তিনি প্রথমে সুই সুতোর কাজ শিখে ২০০৫ সালে ঘরোয়াভাবে শুরু করেন হস্তশিল্পের কাজ

। নাম দেন ‘মৃদুলা হস্তশিল্প’। তাকে উৎসাহ দেন তার স্বামী। এর মাধ্যমে তার সংসারে বাড়তি রোজগার আসতে থাকে। পর্যায়ক্রমে গ্রামের কর্মহীন নারীদের এ কাজের সাথে সম্পৃক্ত করেন হালিমা। বিয়ে বা কোনো উৎসব এলেই মৃদুলা হস্তশিল্পের পণ্যের চাহিদা বাড়তে থাকে।

এ অবস্থায় ব্যবসায়ের পরিসর বাড়াতে তিনি ইসলামী ব্যাংকের কুমারখালী শাখায় যান। নারী উদ্যোক্তা উন্নয়ন স্কিমের আওতায় প্রাথমিকভাবে সাড়ে তিন লাখ টাকা বিনিয়োগ পান। বর্তমানে ১২ লাখ টাকা ব্যাংকের বিনিয়োগসহ তার ব্যবসায়ের মোট মূলধন অর্ধ কোটি টাকা। ১৬ জন নিয়মিত কর্মীসহ চার শতাধিক নারী তার প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন।

তার তৈরি বিয়ের শাড়ি, নকশি শাড়ি, মডেলিং শাড়ি, ওড়না, লেহেঙ্গা, কারুকার্য পাঞ্জাবি ও গৃহসজ্জা সামগ্রীসহ রকমারি পণ্য এখন স্থানীয় মার্কেটের গন্ডি পেড়িয়ে ঢাকা ও বিভাগীয় শহরের বৃহৎ বিপণিগুলোতে শোভা পাচ্ছে। হালিমা খাতুনের মতো দেশের ৬৩ হাজার উদ্যোক্তাকে সফল এসএমই উদ্যোক্তায় পরিণত করেছে ইসলামী ব্যাংক। তাদের মাধ্যমে ৯ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে যার উল্লেখযোগ্য অংশ অসহায় নারী।

গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এসএমই খাতে এ ব্যাংকের বিনিয়োগের পরিমাণ সাড়ে ১৮ হাজার কোটি টাকা, যা দেশের মোট এসএমই বিনিয়োগ বিতরণের ২৭ শতাংশ। এসএমইর মাধ্যমে দেশের টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা পালন করছে বেসরকারি খাতের বৃহৎ ব্যাংকটি। দেশের উন্নয়নের ইঞ্জিন হিসেবে বিবেচিত এসএসই খাতের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে ইসলামী ব্যাংক নারী উদ্যোক্তা বিনিয়োগ প্রকল্প,ক্ষুদ্র শিল্প বিনিয়োগ প্রকল্প, যানবাহন বিনিয়োগ প্রকল্প, ক্ষুদ্র ব্যবসায় বিনিয়োগ প্রকল্প, প্রবাসী উদ্যোক্তা বিনিয়োগ প্রকল্পের মত বেশ কিছু এসএমই প্রোডাক্ট চালু করেছে।

পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা বিনিয়োগ প্রকল্পের মাধ্যমে এ ব্যাংক তৃণমূল পর্যায় থেকে উদোক্তা সৃষ্টি এবং পর্যায়ক্রমে তাদের এসএমইতে উন্নীত করছে। খাদ্য, কৃষিজাত, চামড়া, বস্ত্র, হস্তশিল্প, ইলেকট্রনিকস, পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণ, আমদানি ও রপ্তানি খাতসহ পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়, টেলিকমিউনিকেশন, ট্রান্সপোর্ট, ইনফরমেশন টেকনোলজি, হোটেল ও রেস্টুরেন্ট, ওয়ার্কশপ ইত্যাদিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এসএমই বিনিয়োগ প্রদান করা হয়।

দেশব্যাপী ব্যাংকের সব এসএমই সেবা ও বিনিয়োগ পাওয়া যাচ্ছে। গ্রাহকরা ব্যাংকের যেকোনো শাখা ও ইসলামী ব্যাংক কন্টাক্ট সেন্টার ১৬২৫৯ নম্বরে ফোন করেও সেবাসংক্রান্ত তথ্য পেতে পারেন। বিজ্ঞপ্তি।

Print Print