টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের ১৫ বছর

|| প্রকাশ: ২০১৫-১১-১০ ১২:০৪:৪৭ || আপডেট: ২০১৫-১১-১০ ১২:০৪:৪৭

naimur+ganguli১০ নভেম্বর ২০০০ সাল। টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের পদাচরণা শুরু। দেখতে দেখতে ১৫ বছর হয়ে গেল। অথচ মনে হয় এই সেদিন বুঝি ইতিহাসে প্রথমবার দুই বাঙালি অধিনায়ক টস করতে নেমেছিলেন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে।

অভিষেক ম্যাচে প্রতিপক্ষ হিসেবে বাংলাদেশ পেয়েছিল ভারতকে। দিনটি বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে লেখা থাকবে লাল হরফে। নাঈমুর রহমান দুর্জয় ও সৌরভ গাঙ্গুলী বিশেষভাবে নির্মিত স্বর্ণমুদ্রা দিয়ে টস করেছিলেন। বাকিটা ইতিহাস। টসে জিতে বাংলাদেশ ব্যাট করতে নামে।
আমিনুল ইসলাম বুলবুলের সেঞ্চুরি (১৪৫) এবং হাবিবুল বাশারের ৭১ রানের সহায়তায় বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে তোলে ৪০০ রান। অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয় নেন ছয় উইকেট। স্বপ্নের সূচনার পর স্বাগতিকরা চতুর্থদিনে নিজেদের অভিষেক টেস্ট হেরেছিল দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ব্যর্থতার দরুন।
সেই স্বপ্নযাত্রার দেড় দশক পূর্ণ হল আজ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম থেকে ক্রিকেট স্থানান্তরিত হয়েছে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে। কিন্তু বাংলাদেশের প্রথম টেস্টের স্মৃতি আজও ক্রিকেটপ্রেমীদের মানসপটে উজ্জ্বল।

১৫ বছরের টেস্ট ক্যারিয়ার দেখলে টাইগার সমর্থকরা কিছুটা হলেও হতাশই হবেন। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে এ পর্যন্ত ৯৩টি টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ। ৭টিতে জয় আর ১৫টিতে ড্র করেছে টাইগাররা। তবে ব্যক্তিগত ক্যারিয়ারে বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেটার অন্যদেশের ক্রিকেটারদের তুলনায় এগিয়ে রয়েছে। টেস্ট অলরাউন্ডারদের শীর্ষে রয়েছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। তবে একদিনের ম্যাচে বাংলাদেশের উন্নতি প্রশংসনীয়।

সানবিডি/ঢাকা/এসএস