মানবসেবায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে সেনাবাহিনী: রাষ্ট্রপতি

আপডেট: ২০১৫-১১-১০ ১৯:১৪:৫৫

3369_90265রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি দেশের জনগণের যেকোনো প্রয়োজনে তাদের পাশে দাঁড়াতে সক্ষম। মাতৃভূমির কল্যাণে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সব সময় কাজ করে যাবে।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগরীর হালিশহর এলাকায় সেনাবাহিনীর আর্টিলারি ক্যাম্পে রেজিমেন্ট অব আর্টিলারির (গোলন্দাজ কোর) পঞ্চম পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষরোপণ, ভূমিহীন ও আশ্রয়হীনদের জন্য আবাসন নির্মাণের মাধ্যমে সেনাবাহিনী সেবামূলক কাজে অংশগ্রহণ করছে। বন্যা, ঘূর্ণিঝড়সহ যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে অসহায় জনগণের পাশে দাঁড়িয়ে মানবসেবার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সব ধরনের সেবামূলক মানবিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে।

এর আগে বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে হেলিকপ্টারযোগে বঙ্গভবন থেকে চট্টগ্রাম আর্টিলারি ক্যাম্পে পৌঁছেন রাষ্ট্রপতি। এ সময় সেনাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান। পরে সেখানে রেজিমেন্ট অব আর্টিলারির (গোলন্দাজ কোর) পঞ্চম পুনর্মিলনী কুঁচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন রাষ্ট্রপতি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, গোলন্দাজ রেজিমেন্ট ও দূরপাল্লার কামান সংযোজন এবং কম্পিউটার বেইজড আধুনিক সরঞ্জামাদি গোলন্দাজ কোরের সক্ষমতাকে আরও সুসংহত করেছে। সেনাবাহিনীর গোলন্দাজ কোরের সদস্যরা অপারেশন ও প্রশিক্ষণের পাশাপাশি খেলাধুলায়ও অত্যন্ত সক্রিয়। দেশের প্রয়োজনে সর্বদা এই বাহিনীর সদস্যরা নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছেন। এর ফলে সেনাবাহিনীর প্রতি জনগণের আস্থা ও শ্রদ্ধা বৃদ্ধি পেয়েছে।

চট্টগ্রামে আর্টিলারি সেন্টার ও স্কুলের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের প্রশংসা করে রাষ্ট্রপতি বলেন, প্রশিক্ষণ একটি চলমান প্রক্রিয়া। সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্যকে সর্বোচ্চ মানের পেশাদারিত্ব অর্জনে প্রশিক্ষণকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিতে হবে। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আধুনিক সরঞ্জাম ও কৌশল সম্পর্কে অবহিত থাকতে হবে।  প্রশিক্ষণের পাশাপাশি কঠোর শৃঙ্খলা অনুসরণ করতে হবে।

সানবিডি/ঢাকা/রাআ

Print Print