তারপরও স্মিথরা আসবে না!

প্রকাশ: ২০১৫-১০-০১ ১২:২০:২২


aus news limon_85300একটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দল সফরে এলে যে ধরনের নিরাপত্তা দেওয়া হয়, অস্ট্রেলিয়া দলকে তার চেয়েও উন্নতমানের নিরাপত্তা-ব্যবস্থার নিশ্চয়তা দেওয়া হয়েছে। স্টিভেন স্মিথদের মর্যাদা ‘ভিভিআইপি’ পর্যায়ে উন্নীত করে তাদের রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ের নিরাপত্তা-সুবিধারই প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দলকে এমন ধরনের নিরাপত্তা-সুবিধা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে, যা বাংলাদেশের মাটিতে খেলতে আসা কোনো বিদেশি দলকে কোনোদিন দেওয়া হয়নি। এরপরও অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দল বাংলাদেশ সফরে আসবে না!

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দল বাংলাদেশে আসবে কিনা, ব্যাপারটা বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত নিশ্চিত করতে পারেনি অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা-ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এদিকে, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে আন্তরিক অনুরোধ জানিয়েছেন, সফরটি যেন শেষ পর্যন্ত হয়।

এক বিবৃতিতে নাজমুল হাসান বলেছেন, আমরা অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দলকে সব ধরনের নিরাপত্তা বিধানের নিশ্চয়তা দিয়েছি। একটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দলের জন্য সাধারণত যে ধরনের নিরাপত্তা-ব্যবস্থার পরিকল্পনা করা হয় তার চেয়ে অতিরিক্ত নিরাপত্তা দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বাংলাদেশ সরকারও।’

বিসিবি সভাপতি অস্ট্রেলীয় দলকে ‘ভিভিআইপি’ মর্যাদায় উন্নীত করার বিষয়টি উল্লেখ করে বলেছেন, ভিভিআইপি নিরাপত্তা ব্যবস্থার অধীনে অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দলের প্রতিটি খেলোয়াড় রাষ্ট্রপ্রধান পর্যায়ের নিরাপত্তা সুবিধা ভোগ করবে।

বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রধান তাঁর বিবৃতিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে গত বছর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা মনে করিয়ে দিয়ে বলেছেন, বিসিবি অত্যন্ত সফলভাবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলতে আসা ২৪টি পুরুষ ও নারী ক্রিকেট দলের নিরাপত্তা বিধান করেছিল। অস্ট্রেলিয়া সে সময় বাংলাদেশের যে নিরাপত্তা-পরিস্থিতি মূল্যায়ন করেছিল, দেশের বর্তমান অবস্থা তার চেয়ে অনেক ভালো।

এদিকে, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা প্রধান শন ক্যারলের নেতৃত্বে বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে আসা দলটি গতকাল সারাদিনই অস্ট্রেলিয়াতে বিভিন্ন পর্যায়ের বৈঠকে মিলিত হয়েছে। তারা অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য বিষয়ক দপ্তরের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠকে মিলিত হন। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও বাংলাদেশের নিরাপত্তা পরিস্থিতি ও বাংলাদেশ সফর নিয়ে বেশ কয়েকটি বৈঠকে মিলিত হয়। বাংলাদেশ সফরে আসা অগ্রবর্তী নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দলটি অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটারদের সংগঠনের সঙ্গেও আলোচনায় বসে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া গতকালই বাংলাদেশ সফরের অপেক্ষায় থাকা টেস্ট স্কোয়াডের সদস্যদের নিজ নিজ রাজ্য দলের সঙ্গে অনুশীলনে যোগ দেওয়ার নির্দেশ জারি করে দেয়। অনেকেই বলছেন, এমন নির্দেশ জারির পর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরের ভাগ্য এখন সুতার ওপরই ঝুলছে।

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট দলের হেড কোচ ড্যারেন লেহম্যান স্বীকার করেছেন, বাংলাদেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ টেস্ট সিরিজ ক্রমশ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

সানবিডি/ঢাকা/রাআ

Print Print