১৫ হাজার কোটি টাকার তহবিল চায় বিএসইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০২০-১১-১৭ ১৬:২১:২২ || আপডেট: ২০২০-১১-১৭ ১৬:২১:২২

পুঁজিবাজারের তহবিল সঙ্কট চলছে জানিয়ে তা কাটিয়ে উঠতে বাজার মধ্যস্থতাকারী প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে ১৫ হাজার কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠনের আহ্বান জানিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিটিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

এই হতবিলের মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠানের জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকা এবং আইসিবিসহ স্টক ব্রোকার, স্টক ডিলার, মার্চেন্ট ব্যাংকের জন্য চাওয়া হয়েছে ১০ হাজার কোটি টাকা।

বিএসইসির চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংককে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দিয়েছেন।

চিঠিতে বলা হয়, পুঁজিবাজারে টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিতের লক্ষ্যে আইসিবিসহ অন্যান্য বাজার মধ্যস্থতাকারী তথা মার্চেন্ট ব্যাংকার, স্টক ব্রোকার, স্টক ডিলারের মূলধন ভিত্তি শক্তিশালী করাসহ সার্বিক সক্ষমতা বাড়ানো অত্যন্ত জরুরি। বাংলাদেশ ব্যাংক এই বিশেষ তহবিলে তিন শতাংশ থেকে চার চার সুদে ১০ বছর মেয়াদী ঋণ দেবে। এ তহবিলের বিনিয়োগের সুদের হার হবে চার শতাংশ যার এক শতাংশ সিংকিং ফান্ডে জমা থাকবে।

সিংকিং ফান্ড এমন একটি তহবিল যা দায় পরিশোধ অথবা সম্পদক পরিবর্তনে কাজে লাগানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়, এই তহবিলের মাধ্যমে উত্তেলিত অর্থ মার্চেন্ট ব্যাংকার, স্টক ব্রোকারস ও স্টক ডিলার কতৃক ইস্যুকৃত করপোরেট বন্ড/ডেট সিকিউরিটিজে (যার কুপন হার হবে ছয় থেকে সাত শতাংশ) বিনিয়োগ করা হবে।

এতে বলা হয়েছে, গঠিত এ তহবিলের ব্যবস্থাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে আইসিবি।

চিঠিতে বলা হয়েছে, এই তহবিল গঠন ও বিনিয়োগের মাধ্যমে বাজারে তারল্য ও লেনদেনের পরিমাণ বাড়বে। এটা পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা রক্ষায় সহায়ক ভূমিকা রাখবে। এতে সরকারের রাজস্ব আদায়ও কয়েকগুণ বাড়বে বলেও উল্লেখ করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ