রেমিট্যান্স নিয়ে বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাস কার্যকর হয়নি: রামরু

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-১২-২৯ ১৬:০৯:২৫ || আপডেট: ২০২০-১২-২৯ ১৬:০৯:২৫

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স নিয়ে বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাসে বলেছিলে, ২০২০ সালে বাংলাদেশের প্রবাসী আয় কমে এক হাজার ৪০০ কোটি ডলার হবে। এই আয় গত বছরের তুলনায় ২৫ শতাংশ কম। তবে বিদায়ী ২০২০  নভেম্বর পর্যন্ত অভিবাসী শ্রমিকেরা ১৯.৬৯ বিলিয়ন ডলার রেমিটেন্স পাঠিয়েছে। রেমিট্যান্স প্রবাহের এই ধারা অব্যাহত থাকলে গত বছরের তুলনায় রেমিট্যান্স এর পরিমাণ ১৭.০৫ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। ২০১৯ সালে রেমিট্যান্সের পরিমাণ ছিল ১৮.৩৩ বিলিয়ন ডলার।

আজ মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) রিফিউজি অ্যান্ড মাইগ্রেটরি মুভমেন্ট রিসার্চ ইউনিট (রামরু) আয়োজিত ‘বাংলাদেশ থেকে শ্রম অভিবাসনের গতি-প্রকৃতি ২০২০ সাফল্য ও চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়। অনলাইনে এসব তথ্য তুলে ধরেন রামরুর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ার অধ্যাপক ড. তাসনিম সিদ্দিকী।

এই সংবাদ তিনি বলেন, এ বছর রেমিট্যান্স বাড়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ সন্তোষজনক অবস্থায় রয়েছে। নভেম্বর পর্যন্ত রিজার্ভের পরিমা ৩৯.৬৫ বিলিয়ন ডলার যা গত বছর ডিসেম্বর পর্যন্ত ছিল ৩৮.৫০ বিলিয়ন ডলার। সুতরাং বিশ্বব্যাংকের এই পূর্বাভাস বাংলাদেশের জন্য কার্যকর হয়নি। করোনার প্রভাবে এ বছরের ফেব্রুয়ারি থেকেই নিম্নমুখী ছিল রেমিট্যান্সের ধারা। মার্চ ও এপ্রিলেও বড় বিপর্যয় ঘটে রেমিট্যান্সে।

সানবিডি/এনজে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •