সুন্দর পোশাক পরিধানে মহানবির দিকনির্দেশনা

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২১-০১-০৩ ২১:৩১:০৭ || আপডেট: ২০২১-০১-০৩ ২১:৩১:০৭

মর্যাদা অনুযায়ী সুন্দর পোশাক পরার ব্যাপারে ইসলামের সুস্পষ্ট দিকনির্দেশনা রয়েছে। যুগে যুগে ইসলামিক স্কলাররাও এ বিষয়টির প্রতি বিশেষ সতর্ক ছিলেন। হাদিসের বর্ণনা ও ইসলামের ইতিহাসই এ বিষয়ের সাক্ষী। তাহলো-

– হজরত আবু আহওয়াছ রাদিয়াল্লাহু আনহুর বাবা তার নিজের একটি ঘটনা বর্ণনা করেন যে, আমি একবার প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দরবারে খুব নিম্নমানের কাপড় পরে উপস্থিত হলাম। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাকে জিজ্ঞাসা করলেন-

তোমার কী কোনো ধন-সম্পদ আছে?

আমি বললাম- জ্বী, আছে।

তিনি (আবার) জিজ্ঞাসা করলেন- কী ধরনের ধন-সম্পদ আছে

আমি বললাম- আল্লাহ তাআলা আমাকে উট, গরু, বকরি, ঘোড়া, গোলাম ইত্যাদি সব ধরনের ধন-সম্পদই দান করেছেন।

(তখন) রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন- ‘আল্লাহ তাআলা যখন তোমাকে সব ধরনের ধন-সম্পদ দিয়ে পুরস্কৃত করেছেন তখন তোমার শরীরেও তাঁর দান ও অনুগ্রহের বহিঃপ্রকাশ থাকা উচিত।’ (মিশকাত)

অর্থাৎ আল্লাহ তাআলা যখন বান্দাকে সব ধরনের নেয়ামত দ্বারা প্রাচুর্য দান করেছেন, তখন নিঃস্ব ভিক্ষুকদের বেশ ধারণ করার যৌক্তিকতা কোথায়? এটা মহান আল্লাহর নেয়ামতের নাশোকরী ছাড়া কিছুই নয়।

– হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে জিজ্ঞাসা করলাম, হে আল্লাহর রাসুল! আমার মনোরম ও উত্তম কাপড় পরা কি গৌরব ও অহংকার হবে? তিনি বললেন, ‘না’, এটা তো সৌন্দর্য আর আল্লাহ তাআলা সৌন্দর্যকে ভালোবাসেন।’ (ইবনে মাজাহ)

– অন্য বর্ণনায় তিনি আরও বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘নামাজ আদায়ের জন্য উত্তম কাপড় পরবে (পরিপূর্ণ পোশাক পরে সেজে-গুজে যাবে)। ওই ব্যক্তি আল্লাহ তাআলার কাছে বেশি যোগ্য যে, মানুষ তাঁর দরবারে উপস্থিতির সময় (নামাজের সময়) ভালোভাবে সেজে-গুজে যাবে।’ (মিশকাত)

– হজরত জাবির রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, একদিন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (আমার সঙ্গে দেখা করার জন্য) আমাদের বাড়িতে এলেন। তখন তিনি এক ব্যক্তিকে দেখতে পেলেন যে, সে ধূলাবালিতে মিশ্রিত এবং তার মাথার চুলগুলো এলোমেলোভাবে বিক্ষিপ্ত। তিনি বললেন- ‘তার কাছে চিরুনিও নেই যে, যা দ্বারা সে তার মাথার চুলগুলো ঠিক করে নিতে পারে?

অন্য এক ব্যক্তিকে দেখলেন, যে সে ময়লা কাপড় পরে আছে। তিনি বললেন, তার কাছে কি এমন কোনো জিনিস (সাবান, সোডা ইত্যাদি) নেই, যার দ্বারা সে কাপড়গুলো ধুয়ে পরিস্কার করে নিতে পারে?’ (মিশকাত)

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •