বিশ্বে ২০ বছরের মধ্যে শিশু শ্রমিকের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২১-০৬-১০ ১৭:১৬:০০ || আপডেট: ২০২১-০৬-১০ ১৭:১৬:০০

গত দুই দশকের মধ্যে বিশ্বে প্রথম শিশু শ্রমিকের সংখ্যা বেড়েছে। করোনা মহামারি পরিস্থিতি আরও লাখ লাখ শিশুকে একই ভাগ্যের দিকে ঠেলে দিতে পারে। জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফ এবং আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা যৌথ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত চার বছরে শিশু শ্রমিকের সংখ্যা ৮৪ লাখ বেড়েছে। এতে ২০২০ সালের প্রথম দিকে বিশ্বে শিশু শ্রমিকের সংখ্যা দাঁড়ায় ১৬ কোটিতে।

করোনা মহামারিতে অর্থনৈতিক সংকট শুরু হওয়ার পর থেকে শিশু শ্রমিকের সংখ্যা দ্রুত বাড়তে শুরু করে। এই মুহূর্তে বিশ্বে প্রতি ১০ শিশুর মধ্যে এক জন শ্রমে নিয়োজিত। জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেওয়া না হলে বিশ্বে দারিদ্রে নিপতিত পরিবারের সংখ্যা বিপুল হারে বাড়বে। এর ফলে আগামী দুই বছরের মধ্যে জোর করে শ্রমে নিয়োজিত শিশুর সংখ্যা পাঁচ কোটি বাড়বে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বের শিশু শ্রমিকদের অর্ধেকের বেশিরই বয়স পাঁচ থেকে ১১ বছরের মধ্যে। ২০১৬ সাল থেকে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত পাঁচ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশু শ্রমিকের সংখ্যা ৬৫ লাখ থেকে বেড়ে সাত কোটি ৯০ লাখে পৌঁছেছে। কৃষিখাতে সবচেয়ে বেশি শিশু শ্রমিক নিয়োজিত। এই খাতে কাজ করছে ১১ কোটি ২০ লাখ শিশু।

আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার সিমুলেশন মডেলে দেখা গেছে, সামাজিক সুরক্ষা না পেলে আরও চার কোটি ৬০ লাখ শিশু শ্রমে নিয়োজিত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

সংস্থার মহাপরিচালক গাই রাইডার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেছেন, ‘নতুন অনুমানগুলি সচেতন হওয়ার আহ্বান। আমরা এক মুহূর্তের জন্যও নতুন প্রজন্মের শিশুদের ঝুঁকির মধ্যে ফেলতে পারি না।’

সানবিডি/এএ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •