নিজেই এনিমেশন কার্টুন বানিয়ে নিন ৫ মিনিটে!

|| প্রকাশ: ২০১৬-০১-২৮ ০১:২৯:৫০ || আপডেট: ২০১৬-০১-২৮ ০১:২৯:৫০

xianblog_1304394860_2-Ani-2যারা ছোটোখাটো এনিম্যাশেন করতে চান…..কিন্তু নিজে ভালো আঁকতে পারেন না, থ্রিডিম্যাক্স/মায়া এইসবও পারেন না……যারা এগুলো না জেনেও ছোটোখাটো এনিম্যাশন করতে চান এবং ইউটুউবে আপ করে বন্ধু বা প্রিয়জনকে শেয়ার করতে চান, তাদের জন্যই আজকের টিপস। ভালো লাগলে পোস্টটি শেয়ার করবেন। আর আপনার কাছে এটি পুরাতন মনে হলে এড়িয়ে যান। নতুনদের জন্যই এটি-

১) এই এ্যানিমেশনের জন্য প্রথমে দরকার হবে স্ক্রীপ্ট। প্রাথমিক পর্যায়ে ২টি মাত্র চরিত্রই যথেস্ট।

২)মনে করি আপনার স্ক্রীপ্ট লিখা শেষ হয়ে গেছে। এবার তাহলে ঝটপট এক্সট্রানরমাল ডটকম (http://www.xtranormal.com) এখানে চলে আসুন এবং ফ্রী একটা একাউন্ট করে নিন।
৩)রেজিস্ট্রাশন কমপ্লিট হলে আপনি একটা কন্ট্রলপ্যানেল পাবেন যেটা দেখতে নিচের ছবির মতো।


[প্রথমটা অবজেক্ট প্যানেল আর পরেরটা সাইউডে প্রিভিউ প্যানেল]

অবজেক্ট প্যানেলে আপনি চারটা ট্যাব পাবেন
* সেট
*এক্টর
*সাউন্ড
*স্টোরি

৪) আপনার প্রথম কাজ সেট সিলেক্শন করা। যেই সেটে আপনি এ্যানিমেশনটা করতে চান….সেটা সিলেক্ট করুন
৫)এক্টর ট্যাবটা নিচের চিত্রর মত, এখান থেকে আপনার পছন্দের চরিত্র সিলেক্ট করুন

৬) সাউন্ড প্যানেল থেকে আপনি ব্যাকগ্রাউন্ড সাউন্ড দিতে পারবেন। তবে এটি ইউজ না করাই ভাল…কারন মনে রাখবেন ওয়েব থেকে যত বেশি কমপোনেন্ট ইউজকরা হবে…রেন্ডারিংএ তত বেশি সময় লাগবে।
৭) স্টোরি ট্যাবে পছন্দের চরিত্র সিলেক্ট করে আপনার লিখা স্ক্রিপ্ট কপিপেস্ট করুন। এই ট্যাবে সাব ট্যাব হিসাবে ক্যামেরা, মোশন, একশন ইত্যাদি সিলেক্ট করা যায়। সবই ড্রাগ এন্ড ড্রপ ….খুব সহজ।

৮) আপনি যতটুকু কাজ করেছেন, ততটুকু সেইভ করতে প্রিভিউ প্যানেলের সেইভ বাটন চাপুন আর প্রিভিউ দেখতে প্রিভিউ বাটন চাপুন। ব্যাস তৈরী হয়ে গেলো আপনার এ্যানিমেশন। তবে যেহেতু এখানে আপনি বাংলা ডাইলগ দিতে পারবেন না….আপনাকে কিছু এডিটিং করতে হবে। নিচের স্টেপ গুলো ফলো করলে খুব সহজেই সেই এডিটিং আপনি করতে পারবেন।
৯)  ধরে নিচ্ছি আপনি কোনো কমার্শিয়াল ভাবে না বরং সখের বসেই কাজটা করছেন। সুতরাং ভয়েস দেওয়ার জন্য একাধিক মানুষ এরেন্জ করাটা টাফ। এজন্য আপনি Audacity সফটওয়ারটা ব্যাবহার করতে পারেন। এখানে আপনি ডাইরেক্ট আপনার ভয়েস রেকর্ড করতে পারেন।

১০) একাধিক চরিত্রে ভয়েস একজনের পক্ষে ঠিকমতো একই টোনে দেওয়াটা কঠিন। অন্যদিকে আপনি হয়তো চাইবেন না, আপনার অরিজিনাল ভয়েস পাবলিকলি ব্রডকাস্ট হোক। সেজন্য আপনি কস্ট করে ইফেক্ট ম্যানু থেকে চেইন্জ পিস অপশনে আশুন।

এবার প্যারামিটার চেইন্জ করে করে নিজেই বানান হরেক রকমের মজার টোন…নিচে প্রিভিউ বাটনে ক্লিক করে আগে টোনটা টেস্ট করে নিতে পারেন।
১১) এবার ইউলিড বা উইনডোস মুভিমেকার কিংবা যেই সফটওয়ারে আপনি ভিডিও এডিটিং করতে চান, সেখানে মুভিক্লিপ আর সাউন্ড দিয়ে বানিয়ে ফেলুন আপনার প্রথম এ্যানিমেশনটি আর উইটিউবে আপলোড করে দিন সবার জন্য….

এরকম টিপস নিয়মিত পেতে আমাদের ফেসবুকে লাইক দিন