হিমাগারের আলু নিয়ে বিপাকে চাষি-ব্যবসায়ীরা

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২১-১০-১৩ ২০:৩৮:৪০ || আপডেট: ২০২১-১০-১৩ ২০:৩৮:৪০

দাম কম থাকার কারণে হিমাগারে সংরক্ষণ করা আলু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন জয়পুরহাটের, ব্যবসায়ী ও হিমাগার মালিকরা।

এ বিষয়ে এলাকার কৃষক, ব্যবসায়ী ও হিমাগার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অনুকূল আবহাওয়া থাকায় গত বছর আলুর বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষক ও ব্যবসায়ীরা অধিক লাভের আশায় বিক্রি না করে আলু হিমাগারে সংরক্ষণ করেন। ফলে গত বছরের তুলনায় হিমাগারে আলুর সংরক্ষণ এবার বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ। যার প্রভাব পড়েছে চলতি মৌসুমে। হিমাগারে আলুর দাম কমেছে, পাশাপাশি কমেছে আলুর আনলোডের (খালাস) পরিমাণও।

আলু ব্যবসায়ী ও কৃষকরা জানান, ৬০ কেজির প্রতি বস্তা আলু ক্রয়, হিমাগার ভাড়াসহ আনুষঙ্গিক খরচ মিলে দেশীয় জাতের আলু সংরক্ষণ বাবদ খরচ হয়েছে ১ হাজার ২০০ টাকা। প্রতি বস্তা উফশী জাতের আলুতে খরচ পড়েছে এক হাজার ৫০ টাকা। কিন্তু বর্তমানে প্রতি বস্তা দেশীয় জাতের আলু সর্বোচ্চ ৬০০ ও উফশী জাতের আলু সর্বোচ্চ ৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

জয়পুরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) বাবলু কুমার সূত্রধর বলেন, জেলার ১৭ হিমাগারে সংরক্ষিত আলুর পরিমাণ প্রায় এক লাখ ৯০ হাজার মেট্রিক টন। গত বছর দাম বেশি পাওয়ায় এবার আলু সংক্ষরণও বেশি হয়েছে। দাম না পেলে কৃষক ক্ষতিতে পড়বেন। ফলে আগামী মৌসুমে আলু উৎপাদন ব্যাহতের সম্ভাবনা রয়েছে।

সানবিডি/এনজে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •