বিদায়ী বছরে ৪০ কোম্পানির ভ্যাট ১৭৪ কোটি টাকা

|| প্রকাশ: ২০১৬-০১-৩০ ২২:১৭:০৭ || আপডেট: ২০১৬-০১-৩০ ২২:১৮:০০

vat_1সদ্য সমাপ্ত (২০১৫) বছরে বীমা খাতের সাধারণ কোম্পানিগুলো সরকারকে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) দিয়েছে প্রায় ১৭৪ কোটি টাকা। এ সময়ে সবচেয়ে বেশি ভ্যাট প্রদন করেছে রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটি একাই দিয়েছে প্রায় ২৬ কোটি টাকা। এর পরেই রয়েছে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ও পাইওনিয়র ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। এই কোম্পানি তিনটি ছাড়া আর কোনো কোম্পানি ডাবল ডিজিটের কোটির ঘরে যেতে পারেনি। অন্যদিকে একই সময়ে সরকারকে সব চেয়ে কম ভ্যাট দিয়েছে

বাংলাদেশ কো-অপারেটিভ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটি ২০১৫ সালের ৯ মাসে সরকারকে ভ্যাট দিয়েছে মাত্র ১২ লাখ ৬৯ হাজার ৩৩৬ টাকা। এর পরে রয়েছে পূরবী গ্রীন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটি সমাপ্ত বছরের ১২ মাসে ভ্যাট দিয়ে মাত্র ২১ লাখ ১১ হাজার ৮০৪ টাকা। সম্প্রতি কোম্পানিগুলোর দেয়া এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে দেখা গেছে, দেশে জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি রয়েছে মোট ৪৫ টি। তবে ওই প্রতিবেদনে গত ২০১৫ সালে ৫ টি কোম্পানির কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। এছাড়া নভেম্বর ও ডিসেম্বও মাসে কিছু কিছু কোম্পানির হিসাব পাওয়া যায়নি।

প্রতিবেদনে সূত্রে জানা গেছে, সমাপ্ত বছরের ১২ মাসে ওই ৪০ টি কোম্পানি সরকারকে মোট ভ্যাট দিয়েছে ১৭৩ কোটি ৫০ লাখ ৩৮ হাজার ৯৭ টাকা। এখানে উল্লেখ্য যে, গত বছরের নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসে কয়েকটি কোম্পানির হিসাব ওই প্রতিবেদনে দেয়া হয়নি। এটা পাওয়া গেলে মোট ভ্যাটের পরিমানটা আরো কিছুটা বাড়বে।

প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ২০১৫ সালে একক মাস হিসেবে কোম্পানিগুলো সবচেয়ে বেশি ভ্যাট দিয়েছে বছরের প্রথম সাম জানুয়ারীতে। এ মাসে কোম্পানিগুলো মোট সরকারকে ভ্যাট দিয়েছে ১৯ কোটি ১২ লাখ ৮ হাজার ৭৩৩ টাকা। এর পরেই রয়েছে সেপ্টেম্বর মাস। এ মাসে ভ্যাট দিয়েছে ১৬ কোটি ২৩ লাখ ৪ হাজার ৫৩ টাকা। এর পরে জুনে দিয়েছে ১৫ কোটি ৮৩ লাখ ২৭ হাজার ৬৪২ টাকা। মার্চ মাসে দিয়েছে ১৪ কোটি ৯৬ লাখ ২৩ হাজার ২৯৮ টাকা। এপ্রিলে দিয়েছে ১৪ কোটি ৩৯ লাখ ৭১ হাজার ৪৫০ টাকা। মে মাসে দিয়েছে ১৪ কোটি ২৩ লাখ ৩৭ হাজার ৭২৬ টাকা। অক্টোরব মাসে দিয়েছে ১৩ কোটি ৮১ লাখ ৩৯ হাজার ৬৬১ টাকা। জুলাই মাসে দিয়েছে ১৩ কোটি ৫৩ লাখ ৬৪ হাজার ১০৮ টাকা। আগস্ট মাসে দিয়েছে ১৩ কোটি ৩১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩০ টাকা। ডিসেম্বর মাসে দিয়েছে ১২ কোটি ৭৯ লাখ ৫৬ হাজার ১১৩ টাকা। ফেব্রুয়ারি মাসে দিয়েছে ১২ কোটি ৬৪ লাখ ১৭ হাজার ১৮ টাকা ও নভেম্বর মাসে কোম্পানিগুলো সরকারকে ভ্যাট দিয়েছে ১২ কোটি ৬১ লাখ ৯০ হাজার ৬৬৫ টাকা।

প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, ২০১৫ সালে ৪০ টি কোম্পানির মধ্যে একক কোম্পানি হিসেবে সবচেয়ে বেশি ভ্যাট দিয়েছে রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। ১২ মাসে কোম্পানিটি ভ্যাট দিয়েছে ২৫ কোটি ৬৫ লাখ৪৪ হাজার ২৬২ টাকা। বেশি ভ্যাট দেয়ার তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। ১২ মাসে কোম্পানিটি ভ্যাট দিয়েছে ২৩ কোটি ২৩ লাখ ৬৬ হাজার ৯০ টাকা। তৃতীয় স্থানে রয়েছে পাইওনিয়র ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। ১১ মাসে কোম্পানিটি ভ্যাট দিয়েছে ১৫ কোটি ৫৬ লাখ ৭২ হাজার ১৯৮ টাকা। এর পরে রয়েছে যথাক্রমে বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (৯ কোটি ৭ লাখ ৩২ হাজার ২৯৬ টাকা)। রুপালী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (৮ কোটি ১ লাখ ৬৩ হাজার ৯২০ টাকা।)। নিটল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (৬ কোটি ৫৫ লাখ ২০ হাজার ৯৫ টাকা।)। রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (৫ কোটি ২৬ লাখ ৮৪ হাজার ১৬১ টাকা।)। পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (৫ কোটি ২৬ লাখ ৬৩ হাজার ১৪৮ টাকা।)। ফনিক্স ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (৪ কোটি ৫৮ লাখ ৯৪ হাজার ৫২১টাকা।)। ইসলামী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড (৪ কোটি ১৩ লাখ ১৩ হাজার ৯৭০ টাকা।)।

অন্যদিকে একই সময়ে সরকারকে সব চেয়ে কম ভ্যাট দিয়েছে বাংলাদেশ কো-অপারেটিভ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটি ২০১৫ সালের ৯ মাসে সরকারকে ভ্যাট দিয়েছে মাত্র ১২ লাখ ৬৯ হাজার ৩৩৬ টাকা। এর পরে রয়েছে পূরবী গ্রীন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। কোম্পানিটি ১২ মাসে ভ্যাট দিয়েছে ২১ লাখ ১১ হাজার ৮০৪ টাকা। ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১০ মাসে দিয়েছে ৬২ লাখ ৫৯ হাজার ৭১৫ টাকা। প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১২ মাসে দিয়েছে ৭৪ লাখ ২৫ হাজার ৩৪৬ টাকা। দেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১২ দিয়েছে ৭৭ লাখ ৬২ হাজার ৫২৫ টাকা। সেনা কল্যাণ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১০ দিয়েছে ৮৩ লাখ ৮ হাজার ৭৬৬ টাকা। স্টার্ডাট ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১০ দিয়েছে ৯৫ লাখ ২৯ হাজার ৭২ টাকা। এমিয়া প্যাসিফিক ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১২ দিয়েছে এক কোটি ২৯ লাখ ৩৫ হাজার ৬৯৫ টাকা। গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১২ দিয়েছে এক কোটি ৬২ লাখ ৬৯ হাজার ২৩৩ টাকা। অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড ১২ দিয়েছে এক কোটি ৭৩ লাখ ৪ হাজার ৫৬২ টাকা।