জবির বি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৯ অক্টোবর

|| প্রকাশ: ২০১৫-১০-০৫ ২০:০৬:২৯ || আপডেট: ২০১৫-১০-০৫ ২০:০৮:১১

JNUজগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ সম্মান শ্রেণীর ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৯ অক্টোবর শুক্রবার। ওই দিন  বিকাল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রসহ রাজধানীর মোট ১৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এবার ‘বি’ ইউনিটে ৭২০টি আসনের বিপরীতে ৪০ হাজার ৬৩৪ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন। এখানে প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৫৬ জন শিক্ষার্থীকে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ইতিমধ্যে ভর্তি পরীক্ষার আসন বিন্যাস প্রকাশ করেছে। আসন বিন্যাস অনুযায়ী, রোল নম্বর ২২০০০০১ থেকে ২২০৮৮৪০ পর্যন্ত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে, ২২০৮৮৪১ থেকে ২২১০১৪০ পর্যন্ত পোগোজ স্কুলে (জবি ক্যাম্পাস সংলগ্ন, সদরঘাট), ২২১০১৪১ থেকে ২২১১৩৪০ পর্যন্ত ঢাকা গভঃ মুসলিম হাই স্কুলে, ২২১১৩৪১ থেকে ২২১২৩৯০ পর্যন্ত বাংলাবাজার সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় (বাংলাবাজার), ২২১২৩৯১ থেকে ২২১৩৫৯০ পর্যন্ত ঢাকা কলেজিয়েট স্কুলে (সদরঘাট), ২২১৩৫৯১ থেকে ২২১৬৫৯০ পর্যন্ত ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজে (লক্ষীবাজার), ২২১৬৫৯১ থেকে ২২১৯৪০৮ পর্যন্ত শেখ বোরহানুদ্দীন কলেজে (চানখাঁরপুল), ২২১৯৪০৯ থেকে ২২২২৭০৮ পর্যন্ত বেগম বদরুন্নেসা সরকারী মহিলা কলেজে (বকশীবাজার), ২২২২৭০৯ থেকে ২২২৪১৬০ পর্যন্ত ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজে (ঢাবি ক্যাম্পাস), ২২২৪১৬১ থেকে ২২২৬২৬০ পর্যন্ত ঢাকা সিটি কলেজে, ২২২৬২৬১ থেকে ২২২৮২১৪ পর্যন্ত আইডিয়াল কলেজে (সেন্ট্রাল রোড), ১২০০০০১ থেকে ১২০৩৫০০ পর্যন্ত উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজে (কাকরাইল), ১২০৩৫০১ থেকে ১২০৫৩০০ পর্যন্ত মতিঝিল সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে (মতিঝিল), ১২০৫৩০১ থেকে ১২০৬৫০০ পর্যন্ত মতিঝিল সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে (মতিঝিল), ১২০৬৫০১ থেকে ১২০৮৫০০ পর্যন্ত সিদ্দেশ্বরী গার্লস কলেজে (নিউ বেইলি রোড), ১২০৮৫০১ থেকে ১২১০১০০ পর্যন্ত কে. এল. জুবিলী স্কুল এন্ড কলেজে (নর্থ ব্রুক হল রোড), ১২১০১০১ থেকে ১২১১৭৬৮ পর্যন্ত সেগুন বাগিচা হাই স্কুলে (তোপখানা রোড) এবং ১২১১৭৬৯ থেকে ১২১২৪২০ পর্যন্ত নীলক্ষেত হাই স্কুলে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

 জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি প্রতিরোধে কর্তৃপক্ষ অভিনব ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। পরীক্ষার হলে শিক্ষার্থীরা যাতে কোন ধরণের ইলেকট্রনিক ডিভাইস সঙ্গে আনতে না পারে সেজন্য চালু করা হয়েছে ড্রেসকোড। তাছাড়া অন্যান্য বছরের মতো পরীক্ষা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য পরীক্ষা কমিটিও বিশেষ সর্তকর্তা অবলম্বন করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ড্রেসকোড: ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি প্রতিরোধে এবারই প্রথম ড্রেসকোড চালু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে হলে পরীক্ষার্থীদের হাফ হাতার জামা ও স্যান্ডেল (জুতা ও মোজা ব্যতীত) পরিধান করে পরীক্ষা কেন্দ্রে আসতে হবে। ধর্মীয় অনুশাসন মেনে যারা পোশাক পরিধান করবে তাদের জন্য পোশাকের শর্ত শিথিলযোগ্য। তবে এই সুযোগ নিয়ে যাতে কেউ দুষ্কর্ম করতে না পারে সে ব্যাপারে বিশেষ নজরদারীর ব্যবস্থা থাকবে। এক কেন্দ্রের পরীক্ষার্থী অন্য কেন্দ্রে পরীক্ষা দিলে উত্তরপত্র বাতিল করা হবে। পরীক্ষার্থী পরীক্ষার হলে কোন ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস (যেমন-ক্যালকুলেটর, ঘড়ি, মোবাইল ইত্যাদি) সঙ্গে আনতে পারবে না।

পরীক্ষার হলে পরীক্ষার্থীকে প্রিন্টকৃত দুই কপি প্রবেশপত্র অবশ্যই সঙ্গে আনতে হবে। ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার আসনবিন্যাস বিশ্ববিদ্যালয়ের নোটিশ বোর্ড ও ওয়েবসাইট (www.jnu.ac.bd) পাওয়া যাচ্ছে।