পরিবেশগত ব্যাংকিং নিয়ে কর্মশালা

|| প্রকাশ: ২০১৫-১০-০৬ ১৬:৩৬:৫৭ || আপডেট: ২০১৫-১০-০৬ ১৬:৩৬:৫৭

poribeshব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড খ্যাতনামা আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং স্থানীয় ব্যাংকসমূহের সঙ্গে সহযোগিতার ভিত্তিতে বাংলাদেশি ব্যাংকারদের পেশাগত সামর্থ বৃদ্ধি কার্যক্রম শুরু করেছে। সহযোগী প্রতিষ্ঠানসমূহ হলো- ডিইজি এর সাথে এফএমও, প্রপারকো, ওইইবি, এবং ইউএনইপিএফআই। স্থানীয় সহযোগী ব্যাংকসমূহ হলো- ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড, ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, আইডিএলসি ফিন্যান্স লিমিটেড এবং সিটি ব্যাংক লিমিটেড।

জ্ঞানের পরিসর বৃদ্ধি, পরিবেশগত এবং সামাজিক ঝুঁকি ও সুযোগ-সুবিধা নির্ধারণের সামর্থ বৃদ্ধি করাসহ সৃজনশীলতা ও গ্রিন ব্যাংকিংয়ের সুযোগ-সুবিধাসমূহ চিহ্নিত করা ইএসআরওএম কার্যক্রম এর লক্ষ্য।

আগস্ট মাস থেকে নভেম্বর পর্যন্ত উচ্চ ঝুঁকি সম্পন্ন বিভাগে পরিবেশ এবং সামাজিক প্রসঙ্গে কার্যক্রমের ৬ টি ট্রেনিং সেশন সম্পন্ন হচ্ছে। এতে প্রায় ১৫০ জন রিলেশনশিপ অফিসার এবং এফআইএস এর মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী ক্রেডিট এনালিস্ট অংশ নেবেন।

পরিবেশ এবং সামাজিক সুযোগ-সুবিধা কিভাবে ব্যবসার উন্নয়নে কাজে আসে, তাই ট্রেনিং সেশনে রিলেশনশিপ অফিসার ও ক্রেডিট এনালিস্টরা উপস্থাপন করবেন। কমার্শিয়াল ব্যাংকের পোর্টফলিও থেকে কয়েকটি লেন-দেন সম্পর্কিত কেস স্টাডিজ দ্বারা এটি সম্পন্ন করা হবে যা একটি স্থিতিশীল ব্যবসাবান্ধব পরিবেশের উদাহরণ হিসেবে পরিগণিত হবে।

ভিন্ন ভিন্ন ব্যাংকের পরিবেশ ও সামাজিক ঝুঁকি এবং সুযোগ-সুবিধার ভিন্নতার মধ্যেই এর মাধ্যমে সেরা উদাহরণ উপস্থাপিত হবে।

আন্তর্জাতিক এবং স্থানীয় সহযোগীরা বিগত ৮ মাস ধরে এই কার্যক্রমটি তৈরি করেছেন। তারা কৃতিত্বের সাথে প্রথম ৬টি ট্রেনিং সেশন গত ৩০ অগাস্ট সম্পন্ন হয়েছে। পরিবেশ ও সামাজিক সক্ষমতা পরিচালন বৃদ্ধির জন্য আন্তর্জাতিক এবং স্থানীয় ব্যাংক যেভাবে কাজ করছে, তার শক্তিশালী উদাহরণ হচ্ছে এই ইএসআরওএম কার্যক্রম। এটি বাংলাদেশ ব্যাংকয়ের অর্জনযোগ্য লক্ষ্যমাত্রার সমান্তরাল।

ঢাকার লেকশোর হোটেলে ৩০-৩১ অাগস্ট, ২-৩ সেপ্টেম্বর, ৪-৫ অক্টোবর, ৭-৮ অক্টোবর, ৮-৯ নভেম্বর এবং ১১-১২ নভেম্বর ট্রেনিং সেশন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রথম দুটি সেশন এরইমধ্যে সাফল্যের সাথে সম্পন্ন হয়েছে এবং এর স্পষ্ট সুফল পাওয়া গেছে। আয়োজক কর্তৃপক্ষ প্রত্যাশা করেছেন, বাকি সেশনগুলো থেকে কার্যক্রমের সুস্পষ্ট ফলাফল পাওয়া যাবে।