বাকৃবিতে নতুন উদ্ভাবিত ধানের জাত ‘বাউ ধান-৩’র শস্য কর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০২২-০৫-০৭ ১৮:০৫:০৩ || আপডেট: ২০২২-০৫-০৭ ১৮:০৫:০৩

বাউ ধান-৩ বোরো মৌসুমের আগাম জাতের উচ্চফলনশীল ধানের একটি নতুন জাত। এজাতের ধান পাকা অবস্থায় শীষ থেকে ঝড়ে পড়ে না। জাতটি বোরো মৌসমের জনপ্রিয় ও প্রচলিত ব্রি ধান২৮ এর মত আগাম এবং সমসাময়িক।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কতৃক উদ্ভাবিত বোরো ধানের উচ্চ ফলনশীল জাত ‘বোরো বীজ ধান (বাউ ধান-৩) এর শস্য কর্তন -২০২২’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাউ ধান-৩ এর উদ্ভাবক বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যায়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসান এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, এ ধানের ফলন প্রচলিত ব্রি ধান ২৮ এর চেয়ে বেশি । প্রতি হেক্টর এ ফলন ৭-৮ টন । এ ধানটি মোটামুটি প্রধান প্রধান রোগ প্রতিরোধে সক্ষম। ১০০০ টি পুষ্ট ধানের ওজন ২৫ গ্রাম এ জাতের জীবনকাল ১৪০-১৪৫ দিন যা ব্রি ধান২৮ চেয়ে ৩-৫ দিন বেশি ।

তিনি আরও বলেন , এ ধানে চিটা কম। সেহেতু এ জাতটি বোরো মৌসুমে প্রচলিত ও জনপ্রিয় জাত ব্রি ধান২৮ এর বিকল্প ও পরিপুরক হিসেবে নির্বাচন করা যাবে। তিনি আরও বলেন বাংলাদেশে ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার চাপ সামলাতে বর্ধিত থাদ্য শস্যোর চাহিদার ফলে ফসলের উপাদন বাড়ানোর কোন বিকল্প নাই।

২৮ এপ্রিল বোরো বীজ ধান (বাউ ধান-৩) এর শস্য কর্তন -২০২২’ উপলক্ষে আয়োজিত মাঠ দিবস অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বাকৃবি খামার ব্যবস্থাপনা শাখার আয়োজনে ২৮এপ্রিল বৃহস্পতিবার বোরো বীজ ধান (বাউ ধান-৩) এর শস্য কর্তন -২০২২’ অনুষ্ঠানে প্রধান খামার তত্তাবধায়ক প্রফেসর ড. মো. রমিজ উদ্দিন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যায়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুড়িগ্রাম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের নব নিযুক্ত ভাইস-চ্যান্সেলর ও ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. একেএম জাকির হোসেন, বাউরেস এর পরিচালক প্রফেসর ড. আবু হাদী নূর আলী খান ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রোক্টর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মহির উদ্দীন,প্রফেসর ড. মো.আবদুস সালাম, উপ-প্রধান খামার তত্তাবধায়ক কৃষিবিদ মো. জিয়াউর রহমান,ক্রীড়া প্রশিক্ষণ বিভাগের পরিচালক ড.আবুল কালাম আজাদ,জনসংযোগ ও প্রকাশনা দফতরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ দীন মোহাম্মদ দীনু প্রমুখ।

এএ