ভিয়েতনামের ২২০০ কোটি ডলারের বস্ত্র ও পোশাক রফতানির সম্ভাবনা 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২২-০৬-২৭ ০৯:২২:৪৮ || আপডেট: ২০২২-০৬-২৭ ০৯:২৬:৩০

চলতি ২০২০ বছরের প্রথমার্ধে বস্ত্র ও পোশাক রফতানি রেকর্ড সর্বোচ্চে দাঁড়াতে পারে। সম্প্রতি ভিয়েতনাম টেক্সটাইল অ্যান্ড অ্যাপারেল অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ভু ডুক গিয়াং জানান, জানুয়ারি থেকে জুনের মধ্যে ভিয়েতনামের বস্ত্র ও পোশাক রফতানি ২ হাজার ২০০ কোটি ডলার ছাড়াতে পারে। এমনটা হলে তা হবে ছয় মাসের সময়সীমায় দেশটির ইতিহাসে রেকর্ড সর্বোচ্চ রফতানি। খবর নিক্কেই এশিয়া।

চীনের সাংহাইয়ের প্রলম্ভিত লকডাউনে বিভিন্ন উপকরণ সংগ্রহে সমস্যা দেখা দিলেও ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ (ইইউ) বিভিন্ন অঞ্চল ও দেশের সঙ্গে বেশ কয়েকটি বাণিজ্য চুক্তির ফলে ভিয়েতনামের বৈদেশিক বাণিজ্য চাঙ্গা ছিল।

বর্তমানে চীনের পর বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ তৈরি পোশাক রফতানিকারক দেশ ভিয়েতনাম। সম্প্রতি সাক্ষরিত কমপ্রিহেনসিভ অ্যান্ড প্রোগ্রেসিভ এগ্রিমেন্ট ফর ট্রান্স-প্যাসিফিক পার্টনারশিপে (সিপিএটিপিপি) স্বাক্ষরের ফলেও দেশটির রফতানিতে রেকর্ড প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

ভু ডুক গিয়াং বলেন, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক বাণিজ্য চুক্তির ফলে গত পাঁচ বছরে ভিয়েতনামের তৈরি পোশাক শিল্পে আকর্ষণীয় প্রবৃদ্ধি হচ্ছে। কভিড-১৯ সংক্রমণ হ্রাস, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের বাজারে পোশাকের চাহিদা বৃদ্ধিতে ভিয়েতনামের উৎপাদনমুখী খাত চাঙ্গা হয়েছে। তবে সাম্প্রতিক মূল্যস্ফীতি ও ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন তাদের জন্য মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে চলতি বছরের তৃতীয় ও চতুর্থ প্রান্তিকে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের ক্রয়াদেশ হ্রাসের আশঙ্কা করছেন তিনি।

সানবিডি/এনজে