পদ্মা সেতুর সুফল পেতে শুরু করেছেন মোংলার ব্যবসায়ীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০২২-০৬-২৮ ১৪:১৩:২৭ || আপডেট: ২০২২-০৬-২৮ ১৪:১৩:২৭

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উপর দিয়ে যানবাহন চলাচল শুরুর পর সুফল পেতে শুরু করেছেন  বাগেরহাটের মোংলা বন্দর কেন্দ্রীক ব্যবসায়ীরা। আগে মোংলা থেকে ঢাকায় পণ্য নিয়ে পৌঁছাতে ১০ থেকে ১৪ ঘণ্টা সময় লাগতো। এখন মাত্র তিন ঘণ্টায় ঢাকায় পৌঁছানো যাচ্ছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, পদ্মা সেতু চালুর পর ভোগান্তি কমায় আমদানি-রফতানি বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত ট্রাক-লরির চালক ও হেলপাররা অনেক খুশি। এই সেতু চালু হওয়ায় রাজধানীর সাথে সাড়ে তিন ঘণ্টায় সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে বছরে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় হবে।

এ বিষয়ে মোংলা বন্দর ক্লিয়ারিং অ্যান্ড ফরওয়ার্ডি অ্যাসোসিয়েশনের (সিঅ্যান্ডএফ) সভাপতি সুলতান আহমেদ বলেন, ‘পদ্মা সেতু মোংলা বন্দরের ব্যবসায়ীদের জন্য একটি আশির্বাদ। সেতুটি চালুর পর ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন পণ্য নিয়ে প্রায় দুই শতাধিক ট্রাক ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে গেছে। এ বন্দর ব্যবহার করে আমদানি-রফতানির সঙ্গে জড়িত প্রায় চার শতাধিক ব্যবসায়ী।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগে মোংলা বন্দর থেকে ঢাকায় আমাদের পণ্য পৌঁছাতে সময় লাগতো ১০ থেকে ১৪ ঘণ্টা। এখন লাগছে মাত্র সাড়ে তিন ঘণ্টা। এর ফলে শুধু সড়কপথেই আমাদের আমদানি-রফতানি বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত ব্যবসায়ীদের সময় বাঁচার পাশাপাশি বছরে সাশ্রয় হবে প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা। এছাড়া এই অঞ্চলে ব্যবসা-বাণিজ্য আরও বেড়ে যাবে।’

বাংলাদেশ রিকন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস ইম্পোর্টার অ্যান্ড ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বারবিডা) সভাপতি হাবিবুল্লাহ ডন বলেন, ‘পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর ব্যবসায়ীদের আমদানি করা শতাধিক গাড়ি মোংলা বন্দর থেকে সাড়ে তিন ঘণ্টায় রাজধানীতে পৌঁছে গেছে। ব্যবসায়ীদের শুধু জ্বালানি তেল বাবদ বছরে আনুমানিক প্রায় ১২ কোটি টাকা সাশ্রয় হবে। পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় বন্দর দিয়ে গাড়ি আমদানিতে ব্যবসায়ীদের আগ্রহ বেড়েছে।’

এনজে