পিয়াস ভাই পিপাসা থেকে গেল….

প্রকাশ: ২০১৫-১০-১৩ ১৭:৪৫:৪১

Ronyরেজাউল করিম রনি: প্রথম টকশোতে গেছি। আমি ইচ্ছে করেই সুশীল টাইপের কর্থাবর্তা কই না। টিভিতেও কই না। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলির এক সদস্যা আমার কথায় খুব ক্ষেপে গেল প্রথম শোতেই। লাইভ অনুষ্ঠানে আমাকে চিনে রাখার কথা জানালেন মৃদু ভাবে। আমি যত যেই বলি উনি খালি কয়, আমি নাকি রাজাকর। পাকিস্তানপন্থি। খালি চেতনার ত্যানা প্যাচাইতেছিল….

পরের রাউন্ডে আমি শক্ত কাউন্টার দিলাম। কইলাম, আওয়ামী লীগ দেশটারে গোরস্তানে পরিণত করেছে। এরা নিজেরা নিজেরা মারামারি করে লাশ ফেলে জলাশয় ভরতেছে ( তখন আলোচিত নারায়নগঞ্জ সাত খুন নিয়ে দেশ উত্তাল) মোদি ক্ষমতায় আসছে মাত্র। কইলাম মোদি আসাতে বাংলাদেশের কোন পরির্বতন হবে না। তখন বিএনপির কিছু লোক নাছতেছিল। মনে করতেছিল মোদি তাদের ক্ষমতায় বসায় দিবো। কইলাম, মোদি আসলে নদী পাবো এরও কোন গ্যারান্টি নাই। তার পরে কইলাম আওয়ামী লগের কোন ভবিষ্যৎ নাই। এরা অাত্মঘাতি। এরা কলোনিয়াল-ন্যাশনালিজম মানে উপনিবেশি-জাতীয়তাবাদ আমদানি করেছে। ভারতের উপনিবেশ করে তুলতেছে বাংলাদেশকে। সাংষ্কৃতিক ভাবে কলকাতার ১৯ শতকী ধারা চালু করতে চাইছে বাংলাদেশে। তো লীগ নেতা ‘কলোনিয়াল-ন্যাশনালিজম’ শব্দটা শুনে আতকে উঠলেন। এইটা আবার কি জিনিস? -জানতে চাইলেন। টিভিতে বিস্তারিত ব্যাখ্যার সুযোগ ছিল না।
যা হোক শো শেষ করে বাসায় ফিরে ফোন ওপেন করতেই পিয়াস করিম ভাই এর কল। তিনি আমার আরটিকুলেশনে ব্যাপক খুশি। আমি কইলাম খালি ধন্যবাদ দিলে হবে না। খাওয়াইতে হবে। উনি জোরে হাসতেছেন ঐ পার থেকে। যে কোন সময় কল দিয়ে কফি খাইতে চলে আসব এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে ফোন রেখে দিলাম। তার মাত্র কয়েক দিন পরেই তিনি দুনিয়ার মায়া ছেড়ে চলে গেলেন। অামি দৌড়ে গেলাম। বাসার শোকাবহ পরিবেশে বেশিক্ষন না থেকে দ্রুত ফিরে এলাম।
তাঁর সাথে আড্ডার পিপাসাটা অপূর্ণ রয়ে গেল। পিয়াস ভাই তেমন কিছু লেখন নি। খুব সামান্য লিখেছেন। তিনি ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে বজ্রকন্ঠ হয়ে উঠেছিলেন। জিবনে কোন ধান্ধার মধ্যে যান নাই। পিয়াস ভাই আপনাকে অনেক অনেক ভালবাসা নিয়ে স্মরণ করছি। আজ পিয়াস করিমের প্রথম মৃত্যু দিবস। তিনি আমাদের জন্য সহস রেখে গেছেন। বন্দুকের সামনে সৎ চিন্তা ও সাহস নিয়া প্রতিরোধের এক জরুরী নজির রেখে গেছেন। আমরা আপনাকে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি।

Print Print