নিষেধাজ্ঞার প্রভাবে ২০ শতাংশ কমেছে রাশিয়ার ইস্পাত রফতানি

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২২-০৮-০৪ ০৯:২৮:৪৭ || আপডেট: ২০২২-০৮-০৪ ০৯:২৯:০৩

রাশিয়ান ইস্পাত উৎপাদকরা পাঁচ মাস ধরে  চ্যালেঞ্জিং বাজার পরিস্থিতির মধ্যেই কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের ( ইইউ) নিষেধাজ্ঞার চাপে দেশটির ইস্পাত রফতানি ও রফতানি আয় উভয়ই কমেছে। তবে ব্যাপক প্রতিবন্ধকতা মাথায় নিয়েও রফতানি অব্যাহত রেখেছে রাশিয়া। খবর স্টিল অরবিস।

এ বিষয়ে রাশিয়ার সরকারি তথ্য-উপাত্ত বলছে, চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন) দেশটির ইস্পাত রফতানি গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২০ শতাংশ কমেছে। রুশ শিল্প মন্ত্রণালয় জানায়, পাশ্চাত্যের বাজারে রাশিয়ার প্রবেশাধিকার সীমিত হয়ে পড়েছে। এ পরিস্থিতির মধ্যেই দেশটির ইস্পাত উৎপাদকদের কাজ চালিয়ে নিতে হচ্ছে। অন্যদিকে স্থানীয় বাজারে শিল্পধাতুটির ব্যবহার কমেছে।

তথ্য বলছে, রাশিয়ার হট রোলড কয়েলের শীর্ষ ক্রেতা দেশ তুরস্ক ও ভারত। এছাড়া এশিয়া ও জিসিসিভুক্ত দেশগুলোয়ও পণ্যটি রফতানি করা হয়। অন্যদিকে রাশিয়ান স্লাবের প্রধান ক্রেতা দেশ চীন। এর পরই রয়েছে তুরস্ক ও ইইউর অবস্থান। রাশিয়ান বিলেট ইস্পাতের শীর্ষ ক্রেতা দেশ তুরস্ক, মিসর, চীন ও তাইওয়ান।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পাশ্চাত্য বাজারের বিকল্প হিসেবে নতুন বাজার খুঁজে পেলেও সেখানে অনেক বেশি মূল্যছাড়ে রাশিয়াকে ইস্পাত রফতানি করতে হচ্ছে। নিষেধাজ্ঞার কারণে দেশটির ইস্পাত রফতানিতে ঝুঁকি ক্রমাগত বাড়ছে। অতিরিক্ত মূল্যছাড়ের কারণে ইস্পাত খাত থেকে রফতানি আয়ও ব্যাপক কমেছে।

এনজে