৫-৮ শতাংশ কমতে পারে গমের বৈশ্বিক ব্যবহার

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০২২-০৮-০৪ ১৪:৪৭:২০ || আপডেট: ২০২২-০৮-০৪ ১৫:১০:৪৭

বিশ্বজুড়ে খাদ্যনিরাপত্তাহীনতা বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। এর মধ্যেই এক দশকে সবচেয়ে বড় পরিসরে গমের বৈশ্বিক ব্যবহার কমে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। রেকর্ড মূল্যস্ফীতি ভোক্তা ও কোম্পানিগুলোকে শস্যটির ব্যবহার কমিয়ে আনতে বাধ্য করছে। শূন্যস্থানে জায়গা করে নিচ্ছে কম দামের অন্যান্য খাদ্যশস্য।

এ বছরের দ্বিতীয়ার্ধে গমের আরো এক ধাপ মূল্যবৃদ্ধির মুখোমুখি হতে পারেন ভোক্তারা। আমদানিকারকরা বেশ কয়েক মাস আগেও তুলনামূলক সস্তা দামেই গম কিনতে পেরেছিলেন। কিন্তু মে মাসে এক দশকের শীর্ষে উঠে আসে কৃষিপণ্যটির বাজারদর। বর্তমানে সে রেকর্ডও ছাড়াতে বসেছে।

বিশ্লেষক, ব্যবসায়ী ও মিলাররা জানান, জুলাই-ডিসেম্বর পর্যন্ত গমের বৈশ্বিক ব্যবহার গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৫-৮ শতাংশ কমতে পারে। অর্থাৎ মার্কিন কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) দেয়া পূর্বাভাসের চেয়েও বেশি গতিতে ব্যবহার কমবে। সংস্থাটি ১ শতাংশ হারে ব্যবহার কমার পূর্বাভাস দিয়েছিল।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) অর্থনীতিবিদ এরিন কোলিয়ের বলেন, চীন ও ইউরোপের বাজারে পশুখাদ্য হিসেবে গমের চাহিদা লক্ষণীয় মাত্রায় কমতে যাচ্ছে। এছাড়া বিশ্বজুড়ে প্রধান আমদানিকারক দেশগুলোয় মানুষের খাদ্য হিসেবেও গমের চাহিদা দুর্বল হয়ে আসছে।

এনজে