আইএমএফের শর্ত মেনে সরকার বিষ গিলল: মেনন

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২২-০৮-০৬ ১৯:৩৯:২৫

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ‘ডিজেল, কেরোসিনসহ সব ধরনের জ্বালানির অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি করা হয়েছে। ঘাটতি সমন্বয়ের নামে আইএমএফের শর্ত মানার মধ্য দিয়ে সরকার বিষ গিলল। এই বিষ এখন অর্থনীতির দেহে ছাড়িয়ে রাজনীতি ও সমাজে বিস্তৃত হবে।’

শনিবার (৬ আগস্ট) ঢাকা মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির উদ্যোগে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন মেনন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি মেনন বলেন, ‘আইএমএফ (আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল) যেসব দেশে তাদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়, সেসব দেশেই অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি হয়।’

দাতা গোষ্ঠীর শর্ত মেনেই জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি: ওয়ার্কার্স পার্টিদাতা গোষ্ঠীর শর্ত মেনেই জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি: ওয়ার্কার্স পার্টি বৈশ্বিক সংকটের দায়ভার মানুষের ওপর চাপিয়ে দেওয়া যায় না বলে মন্তব্য করে রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘জ্বালানি ক্ষেত্রে গত দুই দশকে যে দুর্নীতি ও লুটপাট হয়েছে, তা এখনো অব্যাহত আছে, সে ব্যাপারে সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিলেই এই সংকট এড়ানো যেত।’

জনগণ ধৈর্য ধারণ করেছে বলেই ষড়যন্ত্রকারীরা এখন পর্যন্ত দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিজনিত সংকট নিয়ে কিছু করতে পারছে না বলে দাবি করেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি। তিনি বলেন, ‘মুষ্টিমেয় দুর্নীতিবাজ, অসৎ ব্যক্তির লোভের ফলে অর্থনীতির যে দশা হতে চলেছে তাতে জনগণের ওই ধৈর্য বজায় রাখা কঠিন হয়ে পড়েছে। এরপরও গ্যাস, পানি ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি হবে মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা।’

ঢাকা মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি আবুল হোসাইনের সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক কিশোর রায় সভাটি সঞ্চালনা করেন। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পার্টির কার্যালয় এসে শেষ হয়।

এএ

Print Print