স্টার্টআপের ৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ পেল শেয়ারট্রিপ

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশ: ২০২২-০৮-০৭ ২২:২২:১৪

জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অংশীদার ও অংশীজনদের সঙ্গে নিজেদের তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেছে অনলাইন ট্রাভেল এজেন্ট (ওটিএ) শেয়ারট্রিপ। পর্যটন খাতে প্রভাবশালী ভূমিকা পালন এবং শেয়ারট্রিপকে ডিজিটালাইজড করতে প্রতিষ্ঠানটিতে ৫ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে স্টার্টআপ বাংলাদেশ।

রোববার (৭ আগস্ট) রাজধানীর হোটেল শেরাটনে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে বিনিয়োগের ঘোষণা দেওয়া হয়।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে শেয়ারট্রিপের ভ্রমণ ও পর্যটন সম্পর্কিত অংশীদার প্রতিষ্ঠানগুলোকে ২০২০-২০২১ সালে সার্বিক সহায়তা ও নানা ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য সৌহার্দ্যপূর্ণ আংশিদারিত্বের প্রতীক স্বরূপ পুরস্কারের মাধ্যমে সম্মানিত করেছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্টার্টআপ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামি আহমেদ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন শেয়ারট্রিপের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া হক এবং প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা কাশেফ রহমান।

এ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেয়ারট্রিপের অংশীদার প্রতিষ্ঠানদের প্রচেষ্টাকে স্বীকৃতি জানাতে বিভিন্ন বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হয়। যেমন- এক্সেমপ্লারি পারফর্মিং এয়ারলাইন ইন সাউথ এশিয়া, সাউথ-ইস্ট এশিয়া, আমেরিকাস, ইউরোপ, ওশেনিয়া, মিডল ইস্ট ও সেন্ট্রাল এশিয়া, এশিয়া রিজিওনস এবং বাংলাদেশ, লিডিং ক্যাম্পেইন পার্টনার, লিডিং ট্র্যানজাকশন পার্টনার, বেস্ট কমার্শিয়াল পার্টনার, বেস্ট পারফর্মিং এজেন্ট সহ আরও অন্যান্য অনেক বিভাগ।

এছাড়াও গ্রাহকদের পছন্দ জানার জন্য তিন দিনব্যাপী পরিচালিত এক জরিপে দশ হাজারেরও বেশি মতামতের ভিত্তিতে শেয়ারট্রিপ পিপলস চয়েস এয়ারলাইন এবং পিপলস চয়েস হোটেল খাতে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

আইসিটি বিভাগের ফ্ল্যাগশিপ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠান স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেড বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় এ ওটিএ প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করে এবং শেয়ারট্রিপ-ই দেশের প্রথম পর্যটন খাতে বিনিয়োগকৃত প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি পায়। পর্যটন খাতের সব ক্ষেত্রে এ ওটিএ যাতে এগিয়ে যেতে পারে, তাই শেয়ারট্রিপে কৌশলগত এ বিনিয়োগ করা হয়। শেয়ারট্রিপের লক্ষ্য পর্যটন খাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা এবং উন্নয়নকে ডিজিটালাইজড খাতে রূপান্তর করা।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সির মধ্যে শীর্ষে থাকায় আমি শেয়ারট্রিপকে অভিনন্দন জানাই৷ করোনার মধ্যেও তারা যেভাবে তাদের ব্যবসার প্রসার ঘটিয়েছে তা সত্যিই প্রশংসিত। কর্মদক্ষতার মাধ্যমে তারা ইতোমধ্যে অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সির ৫০ শতাংশের বেশি মার্কেট শেয়ার নিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, শেয়ারট্রিপ বাংলাদেশের সেরা একটি অ্যাপ তৈরি করেছে। আমি এই অ্যাপ ডাউনলোড করেছি, আমি চাই আপনারাও এই অ্যাপটি ডাউনলোড করুন।

স্টার্টআপ বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামি আহমেদ বলেন, আমি স্টার্টআপ বাংলাদেশের পরিবারে অন্তর্ভুক্তির জন্য শেয়ারট্রিপকে অভিনন্দন জানাই। আমি নিশ্চিত তারা বিশ্বেরসেরা ওটিএতে পরিণত হবে।

শেয়ারট্রিপ জানায়, দেশজুড়ে ৫ লাখেরও বেশি গ্রাহকদের সেবা দিয়েছে শেয়ারট্রিপ। ৫ হাজারেরও বেশি এজেন্ট ব্র্যান্ডটির জন্য কাজ করে, যা অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ভ্রমণকে আরও সহজ করে তোলে। শেয়ারট্রিপ বিশ্বাস করে, দেশে এখনও ডিজিটাইজেশনের বিশাল সুযোগ আছে।

এএ

Print Print