রূপচর্চায় চন্দন

|| প্রকাশ: ২০১৫-১০-১৪ ১৫:১৮:৫০ || আপডেট: ২০১৫-১০-১৪ ১৫:১৮:৫০

Cinnamon-Powder1

ঔষধি গুণসম্পন্ন চন্দন প্রাচীনকাল থেকেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে রূপচর্চায়। হাতের কাছে পাওয়া উপকরণটি দিয়ে ঝটপট বানিয়ে নেওয়া যায় উপকারী বিভিন্ন ফেসপ্যাক। জেনে নিন রূপচর্চায় চন্দনের ব্যবহার সম্পর্কে।
চন্দনের উপকারিতা

  • রোদে পুড়ে কালচে হয়ে যাওয়া ত্বকে নিয়মিত চন্দনের পেস্ট লাগান। ত্বকের পোড়া দাগ দূর তো হবেই, পাশাপাশি জৌলুস বাড়বে ত্বকের।
  • নিয়মিত চন্দন ব্যবহার করলে বলিরেখা পড়ে না ত্বকে। চন্দনে থাকা প্রাকৃতিক তেল ত্বককে পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে।
  • নরম ও কোমল ত্বকের জন্য চন্দনের বিকল্প নেই।
  • চন্দনের আন্টিব্যাক্টেরিয়াল পদার্থ ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে।

কয়েকটি ফেসপ্যাক

  • ১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ার সঙ্গে আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়া ও ১ টেবিল চামচ গোলাপজল মেশান। মিশ্রণটি ত্বকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত করলে ব্রণ থেকে মুক্তি পাবেন।
  • সমপরিমাণ চন্দন গুঁড়া ও হলুদ গুঁড়ার সঙ্গে দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। সামান্য কর্পূরের গুঁড়া দিন এতে। রাতে শোওয়ার আগে মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে কিছুক্ষণ ম্যাসাজ করুন। মুখ ধোবেন না। সকালে উঠে তারপর ধুয়ে ফেলুন মুখ। ত্বকের বলিরেখা দূর করবে ফেসপ্যাকটি।
  • সমপরিমাণ চন্দন ও হলুদ গুঁড়ার সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন। ত্বকে ৩০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। ত্বককে নরম ও কোমল করবে এটি।
  • চন্দন গুঁড়ার সঙ্গে গোলাপজল মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। তৈলাক্ত ত্বকের জন্য উপকারী ফেসপ্যাকটি পরিষ্কার করবে রোমকূপও।
  • রোদে পোড়া দাগ দূর করতে ১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ার সঙ্গে ১ টেবিল চামচ টক দই ও আধা চা চামচ মধু মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ১ ঘন্টা পর ধুয়ে ফেলুন। রোদে পোড়া দাগ দূর হওয়ার পাশাপাশি ত্বকের জৌলুস বাড়াবে এই ফেসপ্যাকটি।
  • ২ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ার সঙ্গে ১টি ডিমের কুসুম ও ১ টেবিল চামচ মধু মিশান। মুখ ও গলার ত্বকে লাগিয়ে রাখুন ১ ঘন্টা। এটি ত্বকের বলিরেখা দূর করবে।

তথ্য: দ্য ফিট ইন্ডিয়ান
ছবি: সংগ্রহ