৩২ শতাংশ কমেছে ইউক্রেনের শস্য রফতানি

সান বিডি ডেস্ক প্রকাশ: ২০২২-১১-২৪ ০৯:০৭:১৫


রাশিয়া-ইউক্রেন চলমান যুদ্ধের মধ্যে ২০২২-২৩ বিপণন মৌসুমে ইউক্রেনের খাদ্যশস্য রফতানি গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩২ শতাংশ কমেছে। রফতানির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৬২ লাখ টনে। দেশটির কৃষি মন্ত্রণালয় সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

মোট খাদ্যশস্যের মধ্যে গম রফতানি করা হয়েছে ৬৩ লাখ টন, ভুট্টা ৮৬ লাখ ও যব ১৩ লাখ টন। রাশিয়া হামলা চালানোর পর থেকেই খাদ্যশস্য রফতানি নিয়ে বিপাকে পড়ে ইউক্রেন। ছয় মাস ধরে অবরুদ্ধ থাকায় কৃষ্ণসাগরীয় বন্দর দিয়ে রফতানি তলানিতে নেমে আসে। এ সময় দেশটি স্থল, রেল ও নদীপথ দিয়ে সামান্য পরিমাণে রফতানি অব্যাহত রেখেছিল। সংশ্লিষ্টরা জানান, যুদ্ধের আগে ইউক্রেন প্রতি মাসে গড়ে ৬০ লাখ টন খাদ্যশস্য রফতানি করত। কিন্তু যুদ্ধের পর তা ১০ লাখ টনে নেমে আসে। এতে বিশ্বজুড়ে খাদ্যনিরাপত্তা চরম ঝুঁকির মুখে পড়ে। পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে উদ্যোগ নেয় জাতিসংঘ ও তুরস্ক। তাদের মধ্যস্থতায় রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে গত জুলাইয়ের শেষের দিকে একটি চুক্তি হয়। এরপর থেকে ইউক্রেন আবার কৃষ্ণসাগর দিয়ে শস্য রফতানি শুরু করে। দ্রুতই রফতানিতে প্রবৃদ্ধি আসে। কিন্তু এখনো তা যুদ্ধপূর্ব অবস্থায় ফিরে যেতে পারেনি।

সম্প্রতি শস্য রফতানিসংক্রান্ত চুক্তিটি চার মাসের জন্য সম্প্রসারণ করা হয়েছে। কৃষ্ণসাগর দিয়ে শস্য রফতানি সহায়তায় ২ কোটি ডলার দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

চলতি মাসের প্রথম ২০ দিনে কৃষ্ণসাগরীয় বন্দর দিয়ে বিভিন্ন ধরনের অন্তত ৩০ লাখ টন শস্য রফতানি করা হয়েছে, গত বছরের একই সময়ের তুলনায় যা ৩০ শতাংশ কম।

এনজে

Print Print