ওলামা লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১২

|| প্রকাশ: ২০১৫-১০-১৭ ২০:৫০:৩৬ || আপডেট: ২০১৫-১১-০৬ ১৮:০৫:৪৭

Olama legরাজধানীতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ওলামা লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ওলামা লীগের  একাংশের সভাপতি আখতার হুসাইন গ্রুপের ১২ নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে পুলিশের উপস্থিতিতেই ওলামা লীগের অপর অংশের সভাপতি ইলিয়াস হোসাইন বিন হেলালী গ্রুপের নেতামর্কীরা এ হামলা চালায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওলামা লীগের ইলিয়াস ও আখতার হোসাইন গ্রুপের নেতা-কর্মীরা সকাল থেকেই প্রধানমন্ত্রীকে চ্যাম্পিয়ন্স অব দ্য আর্থ পুরস্কার পাওয়ায় অভিনন্দন জানিয়ে মানববন্ধনের প্রস্তুতি নেয়। ওলামা লীগের একাংশের সভাপতি ইলিয়াস হোসাইন বিন হেলালী যখন মানববন্ধনে আসেন, তখনই টুপি পরিহিত অর্ধশতাধিক লোক লাঠি ও চাপাতি নিয়ে পাশেই থাকা আখতার গ্রুপের কর্মীদের ওপর হামলা চালায়।

হামলায় আহত ওলামা লীগের আখতার হুসাইন গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবুল হাসান শেখ শরিয়তপুরী জানান, পুলিশের উপস্থিতিতে হেলালী গ্রুপের সন্ত্রাসীদের হামলায় আমাদের ১২ জন আহত হয়েছেন।

মাওলানা আবুল হোসেন আহত ১২ জনের নাম জানান। তারা হলেন- মাওলানা শওকত আলী শেখ সেলিমপুরী, হাজী হাবিবুল্লাহ রূপগঞ্জী, মাওলানা আবু বকর সিদ্দিকী, মাওলানা মোস্তফা চৌধুরী বাগেরহাটি, মাওলানা লোকমান হোসেন, ক্বারী মাওলানা আসাদ, মাওলানা মো. সোলায়মান, মাওলানা নাজমুল হক, মাওলানা রবিকুল ইসলাম ও মাওলানা শাজাহান।

এদিকে ওলামা লীগের অপর অংশের সভাপতি ইলিয়াস হোসাইন বিন হেলালী বলেন, আমি ওলামা লীগের সভাপতি। যাদেরকে জনগণ তাড়িয়ে দিয়েছে ওরা জামায়াতের এ্যাজেন্ট, হেফাজতের চর। এজন্যই ওলামা লীগের প্রকৃত কর্মীরা ওদের পিটিয়েছে।

অন্যদিকে সংঘর্ষের পর হামলাকারী ইলিয়াস হোসাইন বিন হেলালী গ্রুপের নেতা-কর্মীরা মানবন্ধন করে। এ সময় পুলিশকে তাদের নিরাপত্তায় সচেষ্ট থাকতে দেখা যায়।