বিকেলে কাদের সিদ্দিকীর আপিলের রায়

প্রকাশ: ২০১৫-১০-১৮ ১৫:৫২:৪০ আপডেট: ২০১৫-১০-১৮ ১৫:৫৭:১৫

Kader

টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের উপ-নির্বাচনের প্রার্থী কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি আবদুল কাদের সিদ্দিকী ও তার স্ত্রী নাসরিন সিদ্দিকীর মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে আপিল শুনানি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। রাজধানীর আগারগাঁওয়ের ইসি সচিবালয়ে আজ রোববার সকাল ১১টায় এ শুনানি শুরু হয়।

শুনানিতে নিজের মনোনয়নের বৈধতা দাবি করে প্রয়োজনীয় নথি প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দিনের আহম্মদের কাছে উপস্থাপন করেন কাদের সিদ্দিকী। সব তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা শেষে আজ বিকেলে সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে বলে ইসির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

কাদের সিদ্দিকীর স্ত্রী নাসরিন সিদ্দীকীর আপিলের শুনানিও আজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার ছাড়াও আরও চারজন নির্বাচন কমিশনার শুনানিতে অংশ নেন।

শুনানি শেষে কাদের সিদ্দিকী সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচন কমিশনের প্রতি আমাদের আস্থা আছে। আমি শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করব। আমাদের বিরুদ্ধে ঋণখেলাপীর অভিযোগ কখনোই ছিল না; সেটা কাগজ দিয়ে প্রমাণ করেছি। রিটার্নিং কর্মকর্তা তার দক্ষতার অভাবে আমাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করেছিলেন। আশা করি নির্বাচন কমিশনের কাছে আমরা সুবিচার পাবো। তাই আপাতত উচ্চ আদালতে যাওয়ার কোনো সিদ্ধান্ত নেইনি।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ অক্টোবর টাঙ্গাইল-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী ও তার স্ত্রী নাসরিন কাদের সিদ্দিকীসহ চারজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করে ইসি। গত শুক্রবার দুপুরে ঢাকার আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে কাদের সিদ্দিকী ও নাসরীন সিদ্দিকীর পক্ষে পৃথক আপিল আবেদন করা হয়।

টাঙ্গাইল-৪ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান জানান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোর (সিআইবি) তথ্য অনুসারে কাদের সিদ্দিকীর প্রতিষ্ঠান সোনার বাংলা প্রকৌশলী সংস্থার নামে অগ্রণী ব্যাংকে ১০ কোটি ৮৮ লাখ টাকা ঋণ রয়েছে। কাদের সিদ্দিকী এই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান এবং নাসরিন সিদ্দিকী পরিচালক। ফলে ঋণখেলাপির দায়ে দুই জনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।