‘বন্দুকযুদ্ধে’ মারা গেলেন ‘কুত্তা জহির’

|| প্রকাশ: ২০১৫-১০-২৩ ০৮:৪৩:৫৮ || আপডেট: ২০১৫-১০-২৩ ০৮:৪৩:৫৮

Gun.Cross.Sunbdরাজধানীর বাড্ডার আনন্দ নগর এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জহিরুল ইসলাম বিজয় ওরফে কুত্তা জহির (৩২) নামে এক ‘সন্ত্রাসী’ নিহত এবং দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত একটার দিকে এ ঘটনা ঘটলেও রাত সাড়ে ৩টার দিকে লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পৌছে।

র‌্যাব-১ এর অপারেশন অফিসার এএসপি আকরামুল হাসান জানান, জহিরুলকে অভিযান চালিয়ে আটক করতে গেলে র‌্যাব সদস্যদের উদ্দেশ্যে ‍গুলি করে পালানোর চেষ্টা করেন তিনি। এ সময় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ হলে জহিরুলকে ঢামেক হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তিনি মারা যান এবং দুই র‌্যাব সদস্য আহত হন। জহিরুলের বাবার নাম মালেক আলি।

জহিরুলের বিরুদ্ধে বাড্ডা এলাকায় সন্ত্রাসী, হত্যা, অস্ত্র, চাঁদাবাজিসহ বেশকিছু অভিযোগে সংশ্লিষ্ট থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

র‌্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক মো. মাকসুদুল আলম দ্য রিপোর্ট টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, জহিরুলকে জহির ওরফে কুত্তা জহির নামে সবাই চিনত। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি দেশী তৈরি বন্দুক, দুই রাউন্ড গুলি ও একটি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়।