ব্যর্থতা ঢাকতেই বিএনপি নেতাদের গ্রেপ্তার

|| প্রকাশ: ২০১৫-১০-২৫ ১৬:০৭:০২ || আপডেট: ২০১৫-১১-০৬ ১৮:০০:৪৪

Fakhrulআইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতেই বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সাজানো মামলা দায়ের করে তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

রোববার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠনো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ অভিযোগ করেন।

বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. দেওয়ান সালাহউদ্দিন এবং সাভার পৌর বিএনপির সভাপতি রেফাত উল্লাহকে গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদে এ সংবাদ বিবৃতি দেয়া হয়েছে।

বিএনপির নেতাকর্মীদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়রানিমূলক মামলায় ক্ষমতাসীনরা গ্রেপ্তার করছে বলেও অভিযোগ করেন মির্জা ফখরুল।

বিবৃতিতে ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতে এবং জনগণের দৃষ্টি ভিন্নখাতে নেয়ার জন্য বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়ে সাজানো মামলা দায়ের করে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। এছাড়া গ্রেপ্তারকৃত নেতাকর্মীদের আইনি প্রতিকার পাওয়ার অধিকারটুকুও খর্ব করছে  সরকার।

বর্তমান অবনতিশীল আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, এই পরিস্থিতির জন্য সরকারই দায়ী।

বিএনপির এ নেতা বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে যথাযথভাবে কাজে না লাগিয়ে বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দেয়ার কারণেই বর্তমানে আইনশৃঙ্খলার ভয়াবহ অবনতি ঘটেছে। তিনি সরকারকে সুস্থ ধারায় ফিরে আসার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, জনবিচ্ছিন্ন শাসকগোষ্ঠীর হিংসাশ্রয়ী রাজনীতি ও বিএনপি দলীয় নেতাকর্মীদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে যুক্ত না হওয়ার জন্য ভীতি সৃষ্টিই এর একমাত্র লক্ষ্য। তারা একদলীয় শাসনকে পাকাপোক্ত করার জন্য নানামুখী অপকৌশল এঁটে যাচ্ছে। আর সেই অপকৌশলের অংশ হিসেবে সারাদেশে বিএনপির পুনর্গঠন প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করার হীন উদ্দেশ্যে বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

তিনি অবিলম্বে দেওয়ান সালাহউদ্দিন ও রেফাত উল্লাহর বিরুদ্ধে দায়েরকৃত রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন বিএনপির সহ-দপ্তর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি।